বাংলা নিউজ > ভাগ্যলিপি > গঙ্গা দশমীর দিনে থাকছে বিশেষ যোগ, আর্থিক অনটন দূরের জন্য এই কাজগুলি করুন
পরিঘ যোগ ও শিব যোগ সৃষ্টি হবে গঙ্গা দশমীর দিনে।
পরিঘ যোগ ও শিব যোগ সৃষ্টি হবে গঙ্গা দশমীর দিনে।

গঙ্গা দশমীর দিনে থাকছে বিশেষ যোগ, আর্থিক অনটন দূরের জন্য এই কাজগুলি করুন

চলতি বছর ২০ জুন, রবিবার গঙ্গা দশমী। এদিন গঙ্গা পুজোর বিধান রয়েছে। এর পাশাপাশি গঙ্গা স্নান ও দানের বিশেষ গুরুত্ব স্বীকার করা হয়। চলতি বছরে গঙ্গা দশমী অত্যন্ত শুভ।

প্রতি বছর জ্যৈষ্ঠ শুক্ল পক্ষের দশমী তিথিতে গঙ্গা দশমী পালিত হয়। ধর্মীয় ধ্যানধারণা অনুযায়ী এদিন গঙ্গা মর্ত্যলোকে অবতরিত হন। চলতি বছর ২০ জুন, রবিবার গঙ্গা দশমী। এদিন গঙ্গা পুজোর বিধান রয়েছে। এর পাশাপাশি গঙ্গা স্নান ও দানের বিশেষ গুরুত্ব স্বীকার করা হয়। চলতি বছরে গঙ্গা দশমী অত্যন্ত শুভ। এদিন শনি মকর রাশি থেকে কুম্ভ রাশিতে বক্রি থাকবেন, আবার পাশাপাশি বৃহস্পতির বক্রিদশাও এদিনই শুরু হবে। এ ছাড়াও দুটি বিশেষ যোগ সৃষ্টি হবে এদিন, এগুলি হল পরিঘ যোগ ও শিব যোগ। যার ফলে এই দিনটি আরও গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠবে। তাই এদিন গঙ্গাজল দিয়ে কিছু উপায় করলে ধন বৃদ্ধি ও চাকরিতে উন্নতি সম্ভব।

গঙ্গা দশমীর দিনে পরিঘ যোগ ও  শিবযোগের সময়—

পরিঘ যোগ- ২০ জুন মধ্য রাত্রি ১২টা ০৫ মিনিট থেকে ২০ জুন রাত ৮টা ৫৯ মিনিট পর্যন্ত।

শিব যোগ-  ২০ জুন রাত ৮টা ৫৯ মিনিট থেকে ২১ জুন রাত ৫টা ৩৩ মিনিট পর্যন্ত।

গঙ্গা দশমীর দিনে আর্থিক বৃদ্ধি ও চাকরিতে উন্নতির জন্য কী উপায় করা যেতে পারে, জেনে নিন—

১. পরিবারের সুখ-শান্তির জন্য- গঙ্গা দশমীর দিনে গঙ্গা স্নানের বিশেষ মাহাত্ম্য রয়েছে। কিন্তু করোনা সংক্রান্ত বিধিনিষেধের জেরে এ সময় বাড়িতে গঙ্গা জল মিশ্রিত জলে স্নান করা উচিত। তার পর গঙ্গার ধ্যান করে পুজো করুন এবং পুরো বাড়িতে গঙ্গা জল ছেটান। এর ফলে বাড়ির সমস্ত নেতিবাচক শক্তি দূর হবে। এর পর গঙ্গা জল দিয়ে শিবলিঙ্গের অভিষেক করুন। এর ফলে শিব প্রসন্ন হন এবং পরিবারে ধন-সমৃদ্ধি স্থায়ী হয়।

২. চাকরিতে সাফল্য লাভের জন্য- বহু প্রচেষ্টা সত্ত্বেও যদি চাকরি বা ব্যবসায় সাফল্য লাভ করতে পারছেন না, তাহলে গঙ্গা দশমীর দিনে এই উপায় করে লাভ পেতে পারেন। একটি মাটির কলসিতে জল ভরে তাতে কয়েক ফোঁটা গঙ্গাজল মিশিয়ে নিন। তার পর এতে সামান্য চিনি মিশিয়ে নিন। তার পর মাটিক ঢাকনা দিয়ে এই কলসি ঢেকে দিন। দক্ষিণা-সহ এই মাটির কলসিকে কোনও দরিদ্র, অসহায় ব্যক্তিকে দান করুন। মনে করা হয় এর ফলে কাজে সাফল্য পাওয়া যায়।

৩. ঋণ মুক্ত হওয়ার জন্য- ঋণের জালে জর্জরিত থাকলে গঙ্গা দশমীর দিন নিদের উচ্চতার সমান কালো সুতো নিয়ে সেটিকে নারকেলে বেঁধে দিন। তার পর ঠাকুর ঘরে রেখে তার পুজো করুন। সন্ধের সময় সেই নারকেল জলে প্রবাহিত করুন। লক্ষ্য রাখবেন, কেউ জানতে এ বিষয় জানতে না-পারে। জলে প্রবাহিত করে ফিরে আসার সময় পিছন ফিরে তাকাবেন না। ঋণ মুক্তির জন্য এটিকে কার্যকরী উপায় মনে করা হয়।

৪. আর্থিক অনটন থেকে মুক্তির জন্য- পরিবারে আর্থিক অনটন থাকলে গঙ্গা দশমীর দিনে বেদানার গাছ রোপণ করুন। মনে করা হয় এর ফলে লক্ষ্মী প্রসন্ন হন এবং আর্থিক অনটন দূর হয়। তবে বাড়িতে বেদানা গাছ লাগানো উচিত নয়।

বন্ধ করুন