বাংলা নিউজ > ভাগ্যলিপি > ১৪৮ বছর পর শনি জয়ন্তীর দিনে থাকছে এই যোগ, জানুন শনির অশুভ প্রভাব হ্রাসের উপায়
বজরংবলীর ভক্তদের ওপর শনি অশুভ দৃষ্টি ফেলেন না।
বজরংবলীর ভক্তদের ওপর শনি অশুভ দৃষ্টি ফেলেন না।

১৪৮ বছর পর শনি জয়ন্তীর দিনে থাকছে এই যোগ, জানুন শনির অশুভ প্রভাব হ্রাসের উপায়

চলতি বছর ১০ জুন শনি জয়ন্তী পালিত হবে। শনিকে প্রসন্ন করার জন্য এই দিনটির বিশেষ গুরুত্ব রয়েছে। এদিন নিয়ম মেনে পুজো করলে শনির বিশেষ আশীর্বাদ লাভ করা যায় এবং নানান সমস্যা থেকে মুক্তি লাভ সম্ভব।

পুরাণ মতে জৈষ্ঠ্য মাসের অমাবস্যায় সূর্য ও ছায়া পুত্র শনি জন্মগ্রহণ করে। তাই প্রতি বছর এই তিথিতে পালিত হয় শনি জয়ন্তী। চলতি বছর ১০ জুন শনি জয়ন্তী পালিত হবে। শনিকে প্রসন্ন করার জন্য এই দিনটির বিশেষ গুরুত্ব রয়েছে। এদিন নিয়ম মেনে পুজো করলে শনির বিশেষ আশীর্বাদ লাভ করা যায় এবং নানান সমস্যা থেকে মুক্তি লাভ সম্ভব। এবার শনি জয়ন্তীর দিনে সূর্য গ্রহণ দেখা দেবে। এটি আংশিক সূর্য গ্রহণ এবং ভারতে এটি দেখা দেবে না। জ্যোতিষ অনুযায়ী আংশিক সূর্য গ্রহণ হওয়ার কারণে ভারতে এর সূতক কালও মান্য হবে না এবং কোনও রাশিতে এর প্রভাব পড়বে না। ভারতীয় সময় অনুযায়ী দুপুর ১টা ৪২ মিনিটে সূর্য গ্রহণ শুরু হবে এবং শেষ হবে সন্ধে ৬টা ৪১ মিনিটে।

বর্তমানে নিজের পিতা সূর্যের কারণে স্বরাশি মকরে বক্রিদশায় রয়েছে শনি। আবার শনি জয়ন্তীর দিনই সূর্য গ্রহণ হবে। জ্যোতিষীদের মতে ১৪৮ বছর আগে ঠিক এমন যোগ সৃষ্টি হয়েছিল। মৃগশির নক্ষত্র ও বৃষ রাশিতে সূর্য গ্রহণ লাগবে। মৃগশির নক্ষত্রের অধিপতি মঙ্গল এবং এ সময় মকর রাশিতে বক্রি শনির পূর্ণ দৃষ্টি পড়ছে মীন এবং কর্কটে বিরাজমান মঙ্গলের ওপর। এর পাশাপাশি মঙ্গলের দৃষ্টি রয়েছে বৃহস্পতির ওপর। এ সময় আবার সূর্য, চন্দ্র, রাহু এবং বুধের যুতিও রয়েছে। তবে ভারতে সূর্য গ্রহণের কোনও প্রভাব থাকবে না, তাই এই রাশির জাতকদের ওপর কোনও ধরণের অশুভ প্রভাব দেখা দেবে না।

কোন কোন রাশিতে রয়েছে শনির সাড়েসাতি ও আড়াইয়ের প্রকোপ

জ্যোতিষ অনুযায়ী শনি যে রাশিতে বিরাজ করে সেটি এবং তার আগের ও পরের রাশিতে শনির সাড়েসাতি চলে। এ ছাড়া যে রাশিতে শনি বিরাজ করে, সেখান থেকে ষষ্ঠ ও দশম রাশিতে শনির আড়াইয়ের প্রকোপ চলে। এ সময় শনি মকরে অবস্থিত, তাই তার আগের রাশি ধনু ও পরের রাশি কুম্ভে সাড়েসাতি চলছে। এর পাশাপাশি মিথুন ও তুলায় চলছে শনির আড়াইয়ের প্রকোপ। 

শনিকে প্রসন্ন করার উপায়

এ সময় স্বরাশিতে বক্রি রয়েছে শনি, আবার কিছু রাশিতে সাড়েসাতি ও আড়াইয়ের দশা চলছে। এমন পরিস্থিতিতে শনি জয়ন্তী পড়ায় এই জাতকদের বিশেষ লাভ হতে পারে। শনি জয়ন্তীর দিন কিছু কাজ করে শনিকে প্রসন্ন করা যেতে পারে। এমনকি সাড়েসাতি ও আড়াইয়ের অশুভ প্রভাব থেকে মুক্তিও পেতে পারেন।

ধর্মীয় ধারণা অনুযায়ী বজরংবলীর ভক্তদের ওপর শনি অশুভ দৃষ্টি ফেলে না। তাই যাঁদের ওপর শনির সাড়েসাতি, আড়াই, মহাদশা বা অশুভ প্রভাব রয়েছে, তাঁদের বজরংবলীর আরাধনা করা উচিত।

বন্ধ করুন