বাড়ি > ভাগ্যলিপি > ফেঙ শুই গোরু বাড়িতে শান্তি আনে, সন্তান লাভে সহায়ক হয়
মানসিক শান্তির জন্যও বাড়িতে ফেঙ শুই গোরু রাখা উচিত।
মানসিক শান্তির জন্যও বাড়িতে ফেঙ শুই গোরু রাখা উচিত।

ফেঙ শুই গোরু বাড়িতে শান্তি আনে, সন্তান লাভে সহায়ক হয়

  • হিন্দু ধর্মশাস্ত্রের মতো ফেঙ্গ শুইতে গোরুকে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ মনে করা হয়। ধর্মশাস্ত্র অনুযায়ী, গোরুর শরীরে ৩৩ কোটি দেবী-দেবতার অধিষ্ঠান।

ফেঙ শুই শাস্ত্রে গোরুকে বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। ফেঙ শুই মতেও গোরুকে কামধেনু অর্থাৎ ইচ্ছা পূরণকারী ও মানসিক শান্তি প্রদানকারী মনে করা হয়। 

হিন্দু ধর্মশাস্ত্রের মতো ফেঙ শুই-তে গোরুকে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ মনে করা হয়। ধর্মশাস্ত্র অনুযায়ী, গোরুর দেহে ৩৩ কোটি দেবী-দেবতার অধিষ্ঠান। দেখে নেওয়া যাক বাড়িতে বা অফিসে ফেঙ শুই গোরু স্থাপন করলে কী কী সুফল পাওয়া যায়।

  • বাছুরকে স্তন্যদাত্রী ফেঙ শুই গোরু রাখলে নিঃসন্তান দম্পতি সন্তানসুখ লাভ করতে পারেন। এর ফলে সুস্থ ও গুণধর সন্তানের প্রাপ্তি সম্ভব।
  • একাধিক কয়েনের ওপর বসে রয়েছে, এমন গোরু ফেঙ শুই-তে বিশেষ জনপ্রিয়। এমন গোরুর মূর্তি বাড়ি অথবা অফিস রাখা যেতে পারে। এর ফলে সৌভাগ্য ও সমৃদ্ধি বৃদ্ধি হয়।
  • মানসিক শান্তির জন্য বাড়িতে ফেঙ শুই গোরুর মূর্তি রাখা উচিত। তার প্রভাবে মানসিক শান্তির পাশাপাশি সদিচ্ছা পূর্ণ করার ক্ষেত্রেও সাহায্য করে। এমনকি কঠিন পরিস্থিতি মোকাবিলায় শক্তি জোগাতে অদ্বিতীয় এই মূর্তি। বাড়ির দক্ষিণ-পূর্ব দিকে তা স্থাপন করা উচিত। গোরুর ছবিও ঘরে টাঙানো যেতে পারে।
  • পরিশ্রমের ফল না-পেয়ে থাকলে অফিস টেবিলে ফেঙ শুই গোরুকে রাখা যেতে পারে। পরিশ্রমের উচিত ফল লাভের ক্ষেত্রে সে সাহায্য করে। আবার পড়াশোনায় একাগ্রতা ও সাফল্যের জন্য পড়ার টেবিলেও তাকে রাখা যেতে পারে।

বন্ধ করুন