বাংলা নিউজ > ভাগ্যলিপি > ১১ বছর পর মহালয়ায় সৃষ্টি হচ্ছে গজছায়া যোগ, ঋণগ্রস্তরা এই উপায় পেতে পারেন মুক্তি
ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

১১ বছর পর মহালয়ায় সৃষ্টি হচ্ছে গজছায়া যোগ, ঋণগ্রস্তরা এই উপায় পেতে পারেন মুক্তি

  • সর্বপিতৃ অমাবস্যা ও মহালয়ার দিনে এবার ২১ বছর পর কুতুপ কালে গজছায়া নামক শুভ যোগ সৃষ্টি হচ্ছে।

৬ তারিখ সর্বপিতৃ অমাবস্যা ও মহালয়া। এদিন পিতৃপুরুষদের তর্পণ দিয়ে বিদায় জানানো হয়। আশ্বিন মাসের অমাবস্যা তিথিকে সর্বপিতৃ অমাবস্যা বা মহালয়া বলা হয়। এদিন সকল পূর্বপুরুষদের, বিশেষত যাঁদের মৃত্যু তিথি জানা নেই তাঁদের মুক্তির জন্য শ্রাদ্ধ করা হয়। এদিন মহালয়ার দিনে বিশেষ যোগ সৃষ্টি হচ্ছে। সর্বপিতৃ অমাবস্যা ও মহালয়ার দিনে এবার ২১ বছর পর কুতুপ কালে গজছায়া নামক শুভ যোগ সৃষ্টি হচ্ছে। মনে করা হয় এই শুভ যোগে পূর্বপুরুষদের তর্পণ ও দান করা অত্যন্ত ফলদায়ী।

গজছায়া যোগ ও পিতৃপক্ষ

৬ অক্টোবর মহালয়া। এদিন সমস্ত পূর্বপুরুষদের শেষ তর্পণ দিয়ে বিদায় জানানো হয়। এবার ১১ বছর পর সর্বপিতৃ অমাবস্যা তিথিতে গজছায়া যোগ সৃষ্টি হচ্ছে। এর আগে ৭ অক্টোবর ২০১০ সালে এই সংযোগ সৃষ্টি হয়েছিল। সূর্য ও চন্দ্র যখন এক সঙ্গে সূর্যোদয় থেকে শুরু করে সূর্যাস্ত পর্যন্ত হস্তনক্ষত্রে থাকে তখন গজছায়া যোগ সৃষ্টি হয়। এ বারও সূর্য ও চন্দ্র সূর্যোদয় থেকে শুরু করে সন্ধে ৪টে ৩৪ মিনিট পর্যন্ত হস্ত নক্ষত্রে থাকবে। জ্যোতিষে এই পরিস্থিতিকে গজছায়া যোগ বলা হয়।

পিতৃপক্ষে গজছায়া যোগের গুরুত্ব 

শাস্ত্র মতে অনেক কম সময় গজছায়া যোগ সৃষ্টি হয়। পিতৃপক্ষে এই যোগ সৃষ্টি হওয়ায় এর শুভ প্রভাব বেড়ে যাবে বহুগুণ। মহালয়ার দিনে সূর্য ও চন্দ্র সূর্যদয় থেকে শুরু করে সন্ধে ৪টে ৩৪ মিনিট পর্যন্ত হস্ত নক্ষত্রে থাকবেন। মনে করা হয় এই শুভ যোগে শ্রাদ্ধ ও দান করলে অক্ষয় ফল লাভ করা যায়, এর প্রভাবে বেশ কয়েকবছর পূর্বপুরুষরা তৃপ্ত হয়।

আবার প্রায় ১০০ বছর পর মহালয়ায় সর্বার্থসিদ্ধি যোগ থাকবে। শ্রাদ্ধ ও তর্পণের জন্য এই যোগও অত্যন্ত শুভ।

অন্যান্য যোগ- এই দিন ব্রহ্ম যোগ, তার পর ইন্দ্র যোগ, বৈধৃতি যোগ থাকবে। জ্যোতিষীদের মতে এদিন কুমার যোগও সৃষ্টি হচ্ছে।

 এ ছাড়াও কন্যায় উপস্থিত থাকবে সূর্য, চন্দ্র, মঙ্গল ও বুধ। এই চারটি গ্রহ মিলে চতুর্গ্রহী যোগ সৃষ্টি করছে।

গজছায়া যে যোগে যে কাজ অবশ্যই করবেন

পিতৃপক্ষে পূর্বপুরুষদের শ্রাদ্ধ করলে শুভ ফ লাভ করা যায়। পূর্বপুরুষরা প্রসন্ন হয়ে নিজের পরিবারের সদস্যদের আশীর্বাদ দেয়। গজছায়া যোগে পূর্বপুরুষদের তর্প করলে ব্যক্তি ঋণমুক্ত হয়। মহালয়ার দিনে সৃষ্ট এই শুভ যোগে পূর্বপুরুষদের ঘি-য়ে তৈরি ভোজন অর্পণ করা উচিত। এর ফলে পূর্বপুরুষরা ১২ বছর পর্যন্ত তৃপ্ত হয়ে যান। গজছায়া যোগে ব্রাহ্মণদের ভোজন, গঙ্গা স্নান, বস্ত্রদানের বিশেষ গুরুত্ব রয়েছে। 

বন্ধ করুন