বাড়ি > ভাগ্যলিপি > এই ৬টি জিনিস পেলে খুশি হবেন নাড়ুগোপাল
কৃষ্ণকে রুপোর বাঁসি অর্পণ করা উচিত।
কৃষ্ণকে রুপোর বাঁসি অর্পণ করা উচিত।

এই ৬টি জিনিস পেলে খুশি হবেন নাড়ুগোপাল

  • ১২ অগস্ট কৃষ্ণ জন্মাষ্টমী। এদিন ভক্তরা উপোস থেকে কৃষ্ণের পুজো করেন। জন্মাষ্টমীতে কৃষ্ণের আশীর্বাদ লাভের জন্য কিছু উপায় করা উচিত।

১২ অগস্ট কৃষ্ণ জন্মাষ্টমী। এদিন ভক্তরা উপোস থেকে কৃষ্ণের পুজো করেন। জন্মাষ্টমীতে কৃষ্ণের আশির্বাদ লাভের জন্য কিছু উপচার মেনে চলা দরকার। 

  • কৃষ্ণ নিজের মাথায় সব সময় ময়ূরপঙ্খ ধারণ করতেন। ময়ূরপঙ্খ কৃষ্ণের অত্যন্ত প্রিয়। জন্মাষ্টমীর দিন কৃষ্ণকে অবশ্যই ময়ূরপঙ্খ অর্পণ করবেন।
  • বাঁসি কৃষ্ণের প্রিয়। কৃষ্ণের ছবিও বাঁসি ছাড়া অসম্পূর্ণ। জন্মাষ্টমীর দিন কৃষ্ণকে রুপোর বাঁশি অর্পণ করা উচিত। পুজোর পর এই বাঁশি নিজের পার্স বা টাকা রাখার জায়গায় রেখে দেওয়া উচিত।
  • কৃষ্ণ গোপালক। জন্মাষ্টমীর দিন বাড়িতে গোরু-বাছুরের ছোট প্রতিমা নিয়ে আসুন। এর ফলে আর্থিক সমস্যাও দূর হবে ও আর্থিক পরিস্থিতিতে উন্নতি হবে। এমনকি সন্তান সংক্রান্ত সমস্যাও দূর হবে।
  • জন্মাষ্টমীর দিন কৃষ্ণকে ৫৬টি ব্যঞ্জনের ভোগ দেওয়া উচিত। ধর্মীয় বিধান অনুযায়ী ৫৬ ভোগে কৃষ্ণ প্রসন্ন হন ও ভক্তদের সমস্ত মনস্কামনা পূর্ণ করেন।
  • বিষ্ণু ও লক্ষ্মীর পরিজাত ফুল অত্যন্ত প্রিয়। কৃষ্ণ বিষ্ণুর অবতার। তাই জন্মাষ্টমীর দিন পুজোয় পরিজাত ফুল অবশ্যই ব্যবহার করবেন।
  • জন্মাষ্টমীতে কৃষ্ণের বালক রূপের পুজো করা হয়। এদিন শঙ্খের মধ্যে দুধ নিয়ে কৃষ্ণের বালক রুপের অভিষেক করা হয়। শঙ্খ বিষ্ণুরও প্রিয়।

বন্ধ করুন