বাংলা নিউজ > ভাগ্যলিপি > বুধবার মহালয়া, সুখ-সমৃদ্ধি লাভের জন্য কোন কাজ করবেন ও কী করবেন না? জানুন
মহালয়ার ধুতি পরে পূর্বপুরুষদের উদ্দেশে তর্পণ করুন। খালিপেটে তর্পণ করা উচিত।
মহালয়ার ধুতি পরে পূর্বপুরুষদের উদ্দেশে তর্পণ করুন। খালিপেটে তর্পণ করা উচিত।

বুধবার মহালয়া, সুখ-সমৃদ্ধি লাভের জন্য কোন কাজ করবেন ও কী করবেন না? জানুন

এই অমাবস্যা তিথিকে আবার সর্বপিতৃ অমাবস্যা, বিসর্জনী অমাবস্যাও বলা হয়। এদিন শ্রাদ্ধ, তর্পণ করে পিতৃপুরুষদের বিদায় জানানো হয়।

রাত পোহালেই মহালয়া। পূর্বপুরুষদের বিদায় জানানোর দিন। পিতৃপক্ষের শেষে, অমাবস্যা তিথিতে মহালয়া পালিত হয়ে থাকে। এই অমাবস্যা তিথিকে আবার সর্বপিতৃ অমাবস্যা, বিসর্জনী অমাবস্যাও বলা হয়। এদিন শ্রাদ্ধ, তর্পণ করে পিতৃপুরুষদের বিদায় জানানো হয়। তবে মহালয়ার দিনে বিশেষ কিছু নিয়ম-কানুন মেনে চলা উচিত। এমন কিছু কাজ আছে, যা মহালয়ার দিনে ভুলেও করবেন না। আবার কিছু অবশ্য পালনীয় কর্তব্যও আছে। পূর্বপুরুষদের আশীর্বাদ লাভের জন্য এই কাজগুলি অবশ্যই করা উচিত।

প্রথমে জেনে নিন মহালয়ার দিনে কোন কাজগুলি ভুলেও করবেন না—

১. মহালয়ার দিন কোনও শুভ কাজ করতে নেই। এদিন বিয়ের আলোচনা করা উচিত নয়। বাড়ি, গাড়ি না-কেনাই শ্রেয়। আবার ব্যবসাও শুরু করবেন না।

২. মহালয়ার আমিষ খাওয়া উচিত নয়।

৩. পূর্বপুরুষের ছবির সামনে আমিষ খাবার দেবেন না।

৪. তর্পণ করবেন যে ব্যক্তি, তিনি চুল-দাঁড়ি কাটবেন না।

৫. মহালয়ায় ধমূপান, মদ্যপান নিষেধ।

৬. এদিন কেউ দান-দক্ষিণা চাইলে, তাঁদের ভুলেও খালি হাতে ফিরিয়ে দেবেন না। বাড়িতে খাবার চাইতে এলে খালি পেটে ফিরিয়ে দেবেন না। তাঁদের খাবার দান করুন। আটা, চালও দান করা যেতে পারে।

মহালয়ায় কোন কাজ অবশ্যই করবেন জেনে নিন—

১. ভোরবেলা ঘুম থেকে উঠে স্নান সেরে নিন।

২. ধুতি পরে পূর্বপুরুষদের উদ্দেশে তর্পণ করুন। খালিপেটে তর্পণ করা উচিত।

৩. যাঁরা তর্পণ করতে পারবেন না, তাঁরা পূর্বপুরুষের ছবিতে মালা পরিয়ে প্রিয় খাবার রেখে দিতে পারেন।

৪. এই দিনে দান-ধ্যান করুন। দরিদ্রদের খাবার খাওয়ান, পোশাকও দিতে পারেন। 

৫. গোরু, কুকুর, কাক ইত্যাদি প্রাণীকে খাবার খাওয়াতে পারেন।

৬. এদিন বিষ্ণুর নাম জপ করুন। এ ছাড়া রামায়ণ, মহাভারত অথবা গীতা পাঠ করা উচিত।

বন্ধ করুন