বাংলা নিউজ > ভাগ্যলিপি > Padma Ekadashi 2022: একাদশীতে করুন এই প্রতিকার, দূর হবে সমস্ত দুঃখ কষ্ট
বিবাহ সংক্রান্ত সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে এই দিন একটি কলা গাছের মূলে প্রদীপ জ্বালান। 

Padma Ekadashi 2022: একাদশীতে করুন এই প্রতিকার, দূর হবে সমস্ত দুঃখ কষ্ট

  • Padma Ekadashi 2022: পদ্ম একাদশী কবে পড়েছে? এই তিথির মাহাত্ম্য কি?একে জলজুলনী একাদশী কেন বলা হয়?জেনে নিন এখান থেকে।

ভাদ্রপদ মাসের শুক্লপক্ষের একাদশীকে পদ্ম একাদশী বা বৈবর্ত একাদশী বলা হয়। এই দিনে ভগবান শ্রী হরি বিষ্ণু, যিনি বিশ্রামের শয্যায় শয়ন করেন, তিনি ঘুমানোর সময় তার পাশ পরিবর্তন করেন। তাই এই একাদশীকে পরিবর্তনশীল হিসেবে বিবেচনা করা হয়। এই একাদশীতে ভগবানের বামন অবতারের পূজা করা হয়। এমনটা বিশ্বাস করা হয় যে পরিবর্তিনী একাদশীর দিন উপবাস করলে উপাসকরা মোক্ষ লাভ করেন।

১.একাদশীর উপবাসে, প্রতি মুহূর্তে ভগবান শ্রী হরি বিষ্ণুর ধ্যান করুন।

২. উপবাসে সম্পূর্ণভাবে সাত্ত্বিকতা অনুসরণ করুন। 

৩. এই দিনে আপনার বক্তব্যে কঠোর শব্দ ব্যবহার করবেন না।

৪. সন্ধ্যায় ঘুমাবেন না। এই উপবাসে রাত্রি জাগরণ এবং ভগবানের ভজন কীর্তন করুন।

৫. এই দিনে অভাবীকে দান করুন। সম্ভব হলে গঙ্গায় স্নান করুন। 

৬.একাদশীর দিন সন্ধ্যায় বাড়ির উত্তর-পূর্ব দিকে গরুর ঘির প্রদীপ জ্বালান। 

৭. একাদশীতে বাড়িতে গাছের চারা লাগান।

৮. বিবাহ সংক্রান্ত সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে এই দিন একটি কলা গাছের মূলে প্রদীপ জ্বালান। 

৯. একাদশীর দিন বাড়ির ছাদে গাঁদা ফুলের চারা লাগান। একটি হলুদ পতাকা রাখুন। 

বিশ্বাস করা হয় যে ব্যক্তি শ্রদ্ধার সাথে একাদশীর উপবাস পালন করেন, তার সমস্ত পাপ ধ্বংস হয় এবং তার স্বাস্থ্যও ভাল থাকে। একাদশীর উপবাস করলে ধন-সম্পদ, মান-সম্মান লাভ হয় এবং পিতৃপুরুষের মোক্ষ লাভ হয়।  

এই দিনে দেবী লক্ষ্মীর পূজা করা উত্তম। কথিত আছে, দেবতারা তাদের রাজ্য ফিরে পাওয়ার জন্য এই দিনে মা মহালক্ষ্মীর পূজা করেছিলেন। পরিবর্তিনী একাদশী বামন একাদশী, জলজুলনী একাদশী, দোল গয়রাস এবং জয়ন্তী একাদশী নামেও পরিচিত। এই দিনে উপবাস ও উপাসনা করলে পাপ থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। 

এই দিনে দেবী লক্ষ্মীর আরাধনা করা উত্তম বলে মনে করা হয়। এই দিনে অভাবীকে দান করুন। গঙ্গায় স্নান করুন। বিশ্বাস করা হয় এই দিনে মা যশোদা ভগবান শ্রীকৃষ্ণের বস্ত্র ধুয়েছিলেন। তাই একে জলজুলনী একাদশীও বলা হয়। 

এই দিন স্নানের পর পরিষ্কার হলুদ কাপড় পরিধান করুন। পূজা গৃহে পূর্ব বা উত্তর দিকে হলুদ কাপড় বিছিয়ে ভগবান শ্রী হরি বিষ্ণু ও মা লক্ষ্মীর মূর্তি স্থাপন করুন। সঙ্গে ভগবান শ্রী গণেশ জির মূর্তি স্থাপন করুন। প্রথমে ভগবান শ্রী গণেশ জির পূজা করুন। এই দিনে ভাত খাওয়া যায় না। এই উপবাসে বিষ্ণু সহস্রনাম পাঠ করুন। ওম নমো ভগবতে বাসুদেবায় নমঃ মন্ত্র জপতে থাকুন। এই উপবাস পালন করলে সুখ, সৌভাগ্য ও যশ বৃদ্ধি পায়।

(উপরোক্ত তথ্য ধর্মীয় আস্থা ও লৌকিক মান্যতার উপর আধারিত)

  

বন্ধ করুন