বাংলা নিউজ > ভাগ্যলিপি > গর্ভাবস্থার ৯ মাসে শিশুর ওপর নবগ্রহের প্রভাব প্রবল
শাস্ত্র অনুযায়ী গর্ভাবস্থার চতুর্থ ও নবম মাসের অধিপতি সূর্য।
শাস্ত্র অনুযায়ী গর্ভাবস্থার চতুর্থ ও নবম মাসের অধিপতি সূর্য।

গর্ভাবস্থার ৯ মাসে শিশুর ওপর নবগ্রহের প্রভাব প্রবল

শাস্ত্র অনুযায়ী, গর্ভবতী থাকাকালীন শিশুর ভবিষ্যতের জন্য জ্যোতিষ অনুযায়ী কিছু উপায় করলে গ্রহগতি সন্তানের অনুকূলে রাখা যেতে পারে।

স্ত্রী ন’মাস পর্যন্ত নিজের গর্ভে সন্তান ধারণ করেন। জ্যোতিষ শাস্ত্র অনুযায়ী, গর্ভাবস্থার এই ন’মাস নব গ্রহের সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত। তাই গর্ভবতী থাকাকালীন শিশুর ভবিষ্যতের জন্য জ্যোতিষ অনুযায়ী কিছু উপায় করলে গ্রহগতি সন্তানের অনুকূলে রাখা যেতে পারে। কোষ্ঠিতে নবগ্রহের অনুকূল পরিস্থিতি জীবনে উন্নতি ঘটায়। এখানে জানুন, গর্ভাবস্থার ন’মাসের সঙ্গে গ্রহের সম্পর্ক ও জ্যোতিষ উপায়—

  • জ্যোতিষ অনুযায়ী গর্ভাবস্থার প্রথম মাস শুক্রের হয়। সংসারের সমস্ত সুখের জন্য শুক্রই দায়ী। এ সময় গর্ভবতী মহিলাদের শুক্রের সঙ্গে সম্পর্কিত উপায় করা উচিত, যাতে শিশুর কোষ্ঠিতে শুক্র উচ্চস্থানে থাকে।
  • গর্ভাবস্থার দ্বিতীয় মাস মঙ্গলের। জ্যোতিষে মঙ্গল গ্রহকে সাহস, শক্তি ও পরাক্রমের কারক মনে করা হয়। যে শিশুর কোষ্ঠিতে মঙ্গল প্রবল হয়, সেই সন্তান অত্যন্ত বলশালী, রোগমুক্ত হয়।
  • জ্যোতিষ অনুযায়ী বৃহস্পতি গর্ভাবস্থার তৃতীয় মাসে প্রবল থাকে। বৃহস্পতি শিক্ষা, রোজগার, বিবাহ ও সন্তানের কারক। এ  সময় বৃহস্পতিকে সন্তুষ্ট করার উপায় করলে সুফল পাওয়া যায়।
  • শাস্ত্র অনুযায়ী গর্ভাবস্থার চতুর্থ ও নবম মাসের অধিপতি সূর্য। সূর্যদেব পিতা, সরকারি চাকরি, মান-সম্মান, পদ-প্রতিষ্ঠা ইত্যাদির কারক। এই দুই মাস সূর্যকে মজবুত করার উপায় করা উচিত।
  • পঞ্চম ও অষ্টম হল চন্দ্রের মাস। চন্দ্র মায়ের দীর্ঘায়ু, মামাবাড়ির ভালোবাসা ও সন্তানের মানসিক পরিস্থিতিকে প্রভাবিত করে। যে সন্তানের চন্দ্র গর্ভেই মজবুত হয়ে যায়, তাঁদের জীবনে অত্যধিক পরিশ্রম করতে হয় না।
  • জ্যোতিষ অনুযায়ী, গর্ভাবস্থার ষষ্ঠ মাস শনির। শনি সন্তানের চুল, নখ ও মেরুদণ্ডকে প্রভাবিত করে। এ সময় শনিকে সন্তুষ্ট করার উপায় করা উচিত।
  • গর্ভাবস্থার সপ্তম মাসের অধিপতি বুধ। বুধকে শক্তিশালী করার উপায় করলে সন্তানের বুদ্ধি, বাণী, আত্মবিশ্বাসে বৃদ্ধি হয়।

বন্ধ করুন