বাংলা নিউজ > ভাগ্যলিপি > devuthani ekadashi :: জীবন থেকে সমস্ত বাধা দূর করতে দেবোথ্থানী একাদশীতে করুন এই প্রতিকার

devuthani ekadashi :: জীবন থেকে সমস্ত বাধা দূর করতে দেবোথ্থানী একাদশীতে করুন এই প্রতিকার

দেবোথ্থানী একাদশী উপলক্ষ্যে ভগবান বিষ্ণুকে জাফরান মিশ্রিত দুধ দিয়ে অভিষেক করুন।  

devuthani ekadashi :দেবোত্থানী একাদশীতে জীবন থেকে  সমস্ত বাধা দূর করতে কী বিশেষ প্রতিকার করা উচিত হবে জেনে নিন এখান থেকে।

দেবোত্থানী একাদশীকে ভগবান বিষ্ণুকে খুশি করার জন্য অত্যন্ত শুভ দিন বলে মনে করা হয়। এই দিনে যে ভক্ত ভগবান বিষ্ণুকে খুশি করার জন্য কিছু বিশেষ ব্যবস্থা করেন, তার সৌভাগ্য বৃদ্ধি পায়।

প্রতি বছর কার্তিক মাসের শুক্লপক্ষের একাদশী তিথিতে দেবোত্থানী একাদশী উদযাপিত হয়। এ বছর দেবোত্থানী একাদশীর উৎসব ০৪ নভেম্বর। দেবোত্থানী একাদশীর দিনটি শ্রী হরি বিষ্ণুকে উৎসর্গ করা হয়। এই দিনে বিশ্বের ভগবান শ্রী হরি বিষ্ণু তাঁর চার মাসের যোগ নিদ্রা থেকে জাগ্রত হন। এর পরেই শুরু হয় সমস্ত শুভ কাজ। আসুন জেনে নেই দেবোত্থানী একাদশীতে কি প্রতিকার করবেন।

দেবোত্থানী একাদশী উপলক্ষ্যে ভগবান বিষ্ণুকে জাফরান মিশ্রিত দুধ দিয়ে অভিষেক করুন। এতে করে শ্রী হারি খুশি হন এবং কাঙ্খিত ফল লাভ হয়।

দেবোত্থানী একাদশীর দিন সকালে ঘুম থেকে উঠে জলে গঙ্গাজল মিশিয়ে স্নান করুন। এতে করে জীবনে সব সুখ পাবেন। স্নান করার পরে গায়ত্রী মন্ত্র জপ করা উচিত, বিশ্বাস করা হয় যে এটি সুস্বাস্থ্য নিয়ে আসে।

দেবোত্থানী একাদশীর দিন ভগবান বিষ্ণুকে হলুদ বস্ত্র, হলুদ ফল এবং হলুদ ফুল নিবেদন করুন।পুজোর পরে গরীব-দুঃখীকে দান করুন। এটা বিশ্বাস করা হয় যে এটি করলে ভগবান বিষ্ণুর কৃপা আপনার উপর থাকবে।

সম্পদ বৃদ্ধির জন্য দেবোত্থানী একাদশীর দিন বিষ্ণু মন্দিরে সাদা মিষ্টি বা ক্ষীর নিবেদন করুন। মনে রাখবেন ভোগে তুলসী পাতা অবশ্যই দেবেন। ভগবান বিষ্ণু শীঘ্রই এতে প্রসন্ন হন এবং ধন-সম্পদে পূর্ণ হবে জীবন।

কথিত আছে যে ভগবান বিষ্ণু অশ্ব্থ্থ গাছে বাস করেন। দেবোত্থানী একাদশীর দিন অশ্ব্থ্থ গাছে জল নিবেদন করুন। সন্ধ্যায় গাছের নিচে প্রদীপ জ্বালান। এই প্রতিকার করলে ঋণ থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

 

বন্ধ করুন