বাংলা নিউজ > ভাগ্যলিপি > ঘরে সূর্যের আলো না পৌঁছালে এই প্রতিকার করুন এই বাস্তুশাস্ত্রের উপায়ে
বাস্তুমতে কিছু তথ্য সূর্যালোক নিয়ে (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্যে রয়টার্স)

ঘরে সূর্যের আলো না পৌঁছালে এই প্রতিকার করুন এই বাস্তুশাস্ত্রের উপায়ে

  • শিশুদের অধ্যয়ন কক্ষে সূর্যের মূর্তিও রাখতে পারেন। বাড়িতে একটি সূর্য মূর্তি রাখুন যেখানে পরিবারের সদস্যরা সর্বাধিক সময় কাটান। রান্নাঘরে তামার সূর্য মূর্তি স্থাপন করলে ঘরে কখনই খাবারের অভাব হয় না। বাড়ির মন্দিরে তামার সূর্য মূর্তি স্থাপন করলে সূর্য দেবতার আশীর্বাদ পরিবারে থাকে।

নোেূসূর্যদেব দৃশ্যমান ঈশ্বর। কথিত আছে, সূর্য দেবতার পূজা করলে অন্য সব গ্রহের রোগ আরোগ্য হয়। সূর্য দেবতাকে খুশি করার জন্য কিছু বিশেষ প্রতিকারের কথা বলা হয়েছে। চলুন জেনে নিই তাদের সম্পর্কে।

এটা বিশ্বাস করা হয় যে ভগবান গণেশ, ভগবান শিব, ভগবান বিষ্ণু, মা দুর্গা এবং সূর্যদেবের প্রতিদিন পূজা করা উচিত। সূর্যদেবকে সন্তুষ্ট করলে পরিবারের স্বাস্থ্যের উন্নতি ঘটে এবং রোগের বিরুদ্ধে লড়াই করার শক্তির বিকাশ ঘটে। সকালে স্নান করে সূর্যদেবকে জল অর্পণ করুন। যেসব বাড়িতে সূর্যের আলো ঠিকমতো পৌঁছায় না, সেখানে সূর্যদেবের তামার মূর্তি স্থাপন করতে হবে। ঘরের যেখানে মূল্যবান জিনিসপত্র রাখা হয় সেখানে তামার সূর্য মূর্তি স্থাপন করলে অর্থের অভাব হয় না।

শিশুদের অধ্যয়ন কক্ষে সূর্যের মূর্তিও রাখতে পারেন। বাড়িতে একটি সূর্য মূর্তি রাখুন যেখানে পরিবারের সদস্যরা সর্বাধিক সময় কাটান। রান্নাঘরে তামার সূর্য মূর্তি স্থাপন করলে ঘরে কখনই খাবারের অভাব হয় না। বাড়ির মন্দিরে তামার সূর্য মূর্তি স্থাপন করলে সূর্য দেবতার আশীর্বাদ পরিবারে থাকে। বাড়ির পূর্ব দিকে সাতটি ঘোড়ার রথে চড়ে সূর্যদেবের ছবি লাগাতে পারেন। সূর্যদেবকে জল নিবেদনের জন্য শুধুমাত্র একটি তামার পাত্র ব্যবহার করুন। এই পাত্রটি আলাদা রাখুন এবং নিয়মিত ব্যবহার করা তামার পাত্র ব্যবহার করবেন না। লাল বস্ত্র পরিধান করে সূর্যদেবকে জল নিবেদন করা অধিক কার্যকরী বলে বিবেচিত হয়।

( উপরোক্ত তথ্যে এটা কখনই দাবি করা হচ্ছে না যে এটা পূর্ণত সত্য এবং সঠিক ৷ এই তথ্য ধর্মীয় আস্থা ও লৌকিক মান্যতার উপর আধারিত )

বন্ধ করুন