বাংলা নিউজ > ভাগ্যলিপি > বুদ্ধ পূর্ণিমার আগেই রাশি পরিবর্তন করছে সূর্য, জেনে নিন এই পূর্ণিমার মাহাত্ম্য
সূর্যের গোচরের ফলে তুলা রাশির জাতকদের আর্থিক সমস্যার মুখোমুখি হতে হবে।

বুদ্ধ পূর্ণিমার আগেই রাশি পরিবর্তন করছে সূর্য, জেনে নিন এই পূর্ণিমার মাহাত্ম্য

  • পিতা ও আত্মার সঙ্গে সূর্য সম্পর্কযুক্ত। জ্যোতিষে গ্রহের অধিপতি সূর্য। হিন্দু পঞ্জিকা অনুযায়ী ১৫ মে নিজের রাশি পরিবর্তন করবে সূর্য।

জ্যোতিষ শাস্ত্র অনুযায়ী সূর্যকে গ্রহের রাজা বলা হয়। পিতা ও আত্মার সঙ্গে সূর্য সম্পর্কযুক্ত। জ্যোতিষে গ্রহের অধিপতি সূর্য। হিন্দু পঞ্জিকা অনুযায়ী ১৫ মে নিজের রাশি পরিবর্তন করবে সূর্য। এর ঠিক পরের দিন, বৈশাখ মাসের পূর্ণিমা তিথি অর্থাৎ ১৬ মে চন্দ্রগ্রহণ সংগঠিত হতে চলেছে। 

১৫ মে ভোর ৫টা ৪৪ মিনিটে রাশি পরিবর্তন করবে সূর্য। সূর্যের এই গোচরের ফলে তিনটি রাশির জাতকদের সাবধানে থাকতে হবে।

বৈশাখ পূর্ণিমার শুভক্ষণ

১৫ মে রবিবার, ১২টা ৪৭ মিনিটে শুরু হবে। পরের দিন ১৬ মে, সোমবার ৯টা ৪৫ মিনিট পর্যন্ত পূর্ণিমা তিথি থাকবে। ১৬ মে পূর্ণিমার ব্রত পালিত হবে। এ দিন বুদ্ধ পূর্ণিমা পালিত হবে। বৈশাখ পূর্ণিমার দানের জন্য সকালবেলার সময় অতিউত্তম। পৌনে দশটার আগে দান করা শুভ।

মিথুন, তুলা ও বৃশ্চিক রাশির জাতকরা সাবধান

জ্যোতিষীদের মতে সূর্যের রাশি পরিবর্তনের ফলে মিথুন রাশির জাতকদের অত্যন্ত সতর্ক থাকতে হবে। ভাই-বোনের সঙ্গে ভুল বোঝাবুঝির কারণে সম্পর্ক নষ্ট হতে পারে। চাকরিজীবীজের সমস্যায় পড়তে হবে। 

তুলা রাশির জাতকদের আর্থিক সমস্যার মুখোমুখি হতে হবে। তাই এ সময় সম্পত্তির লেনদেন এড়িয়ে চলুন। কোনও নতুন ব্যবসা করবেন না। আপাতত অপেক্ষা করুন।

অন্য দিকে বৃশ্চিক রাশির জাতকদের সমস্যা হতে পারে। চাকরিজীবীদের জীবনে সমস্যা দেখা দিতে পারে। যাত্রার সম্ভাবনা রয়েছে। রাগ নিয়ন্ত্রণে রাখুন। রাগে মুখর হবেন না। দাম্পত্য জীবনে তিক্ততা আসতে পারে। জীবনসঙ্গীর সঙ্গে সম্পর্কে সমস্যা দেখা দেওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

বুদ্ধ পূর্ণিমার গুরুত্ব

হিন্দু ধর্মে বৈশাখ পূর্ণিমা বা বুদ্ধ পূর্ণিমায় গঙ্গা বা কোনও পবিত্র নদী অথবা কুণ্ডে স্নান করা অত্যন্ত শুভ। এদিন স্নানের পর বিষ্ণুর পূজার্চনা করে, নিজের সামর্থ্য ও শ্রদ্ধা অনুযায়ী দান-পুণ্য করা উচিত। এর ফলে ব্যক্তি সমস্ত দুঃখ-কষ্ট থেকে মুক্তি পাবেন। এমনকি অজ্ঞানতাবশত বা ইচ্ছাকৃত সমস্ত পাপ থেকে মুক্তি লাভ করবে জাতক।

শাস্ত্র মতে, বুদ্ধ পূর্ণিমার দিনে সত্যবিনায়ক ব্রত পালন করা অত্যন্ত ফলদায়ী। এই ব্রতর ফলে ধর্মরাজ যমরাজ প্রসন্ন হন, পাশাপাশি অকালমৃত্যুর ঝুঁকিও দূর হয়। তাই পূর্ণিমার দিনে চিনি, সাদা তিল, আটা, দুধ, দই, পায়েস ইত্যাদি সাদা বস্তু দান করার পরামর্শ দেওয়া হয়।

বন্ধ করুন