বাংলা নিউজ > ভাগ্যলিপি > Kartik Purnima: আগামিকাল পূর্ণিমায় এই ৪টি জিনিস জলে দিয়ে স্নান করুন, বহু দুর্যোগ কেটে যাবে

Kartik Purnima: আগামিকাল পূর্ণিমায় এই ৪টি জিনিস জলে দিয়ে স্নান করুন, বহু দুর্যোগ কেটে যাবে

কার্তিক পূর্ণিমায় জলে কী কী দিয়ে স্নান করবেন?

Kartik Purnima: আগামিকাল পূর্ণিমায় কোন ৪টি জিনিস জলে দিয়ে স্নান করলে ভাগ্য উজ্জ্বল হবে? এদিন কী করবেন লক্ষ্মীর কৃপা পেতে,জেনে নিন এখান থেকে।

কার্তিক মাসের পূর্ণিমার উপবাস ৮ নভেম্বর ২০২২ রাখা হবে। এই দিনে পবিত্র নদীর জলে বিশেষ কিছু জিনিস রেখে স্নান করলে সমস্ত দোষ-ত্রুটি দূর হয় এবং সাফল্য পাওয়া যায়।

কার্তিক পূর্ণিমা শ্রেষ্ঠ বলে বিবেচিত হয়, কারণ এই পুরো মাসটি ভগবান বিষ্ণুকে উৎসর্গ করা হয়। এই দিনে, পবিত্র নদীতে স্নান, তপস্যা, ধ্যান, দান পূজা ইত্যাদির পর ভগবান শ্রী হরির পূজা করা হয়।

এটা বিশ্বাস করা হয় যে এর দ্বারা জীবনের সমস্ত পাপ বিনষ্ট হয় এবং অক্ষয় পুণ্য লাভ হয়। যদি নদীতে স্নান করা সম্ভব না হয় তবে ঘরে পবিত্র নদীর জল মিশিয়ে নিন।

কার্তিক পূর্ণিমা দেব দীপাবলি নামেও পরিচিত। শাস্ত্র মতে এই দিনে ভগবান বিষ্ণু মৎস্য অবতার গ্রহন করেন। এমনও বিশ্বাস করা হয় যে এই দিনে ভগবান শিব ত্রিপুরাসুর রাক্ষসকে বধ করেছিলেন। এই খুশিতে দেবতারা দিওয়ালি উদযাপন করেন। এই দিনে শ্রদ্ধার সাথে পূজা করলে ভগবান শ্রী হরির সাথে সাথে মা লক্ষ্মীর আশীর্বাদও পাওয়া যায়। কার্তিক পূর্ণিমার দিনে কিছু প্রতিকার করলে মনস্কামনা পূরণ হয়। সেই সঙ্গে শাস্ত্র মতে এই দিনে স্নানের জলে কিছু বিশেষ জিনিস মিশিয়ে স্নান করলে সমস্ত দোষ দূর হয় এবং সাফল্যের সঙ্গে আর্থিক সুবিধাও পাওয়া যায়। আসুন জেনে নিই সেই জিনিসগুলো কি।

এলাচ-জাফরান

দীর্ঘ সময় ধরে কোনো কাজ আটকে থাকলে বা শুভ কাজে বাধাগ্রস্ত হলে কার্তিক পূর্ণিমার দিন পবিত্র নদীর জলে ২টি এলাচ ও সামান্য জাফরান মিশিয়ে স্নান করুন। এতে নেতিবাচক শক্তি দূর হবে এবং খুব শীঘ্রই খারাপ সময় শেষ হবে। শ্রী হরির কৃপায় আপনি আপনার কাজ প্রমাণ করতে পারবেন। জাফরান স্নান করলে সূর্যের মঙ্গল পাওয়া যায়।

দুধ

শাস্ত্র মতে কার্তিক পূর্ণিমায় স্নানের জলে দুধ মিশিয়ে স্নান করলে শারীরিক দুর্বলতা দূর হয়। আত্মবিশ্বাস বৃদ্ধি পায় এবং সাধক পূর্ণ শক্তি নিয়ে কাজ করতে সক্ষম হয়। স্নান করে শ্রী হরির ধ্যান করুন এবং বিষ্ণু সহস্রনাম পাঠ করুন।

হলুদ

হলুদ ভগবান বিষ্ণুর প্রিয়। কার্তিক পূর্ণিমায় এক চিমটি হলুদ দিয়ে স্নান করলে দাম্পত্য সমস্যা দূর হয়। এর সাথে বৃহস্পতি দেবের কৃপা পাওয়া যায়। হলুদের জলে স্নানও স্বাস্থ্যের জন্য খুবই উপকারী।

কালো তিল

অর্থের অভাব আছে এবং টাকা এলেই সব খরচ হয়ে যায়, তাহলে কার্তিক পূর্ণিমায় জলে কালো তিল মিশিয়ে স্নান করুন। জ্যোতিষশাস্ত্র অনুসারে, এতে একজন ব্যক্তির ভাগ্য শক্তিশালী হয়, দারিদ্র্য দূর হয়।

 

 

বন্ধ করুন