বাড়ি > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > 'ভুলবেন না ভোটের বছর আছে', এয়ার ইন্ডিয়ার কর্মীদের বিনা বেতনে ছুটিতে হুঁশিয়ারি মমতার
মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (ছবি সৌজন্য পিটিআই)
মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (ছবি সৌজন্য পিটিআই)

'ভুলবেন না ভোটের বছর আছে', এয়ার ইন্ডিয়ার কর্মীদের বিনা বেতনে ছুটিতে হুঁশিয়ারি মমতার

  • মমতার প্রশ্ন, ‘কীভাবে পাঁচ বছর বেতন ছাড়াই কর্মীদের ছুটিতে পাঠাতে পারে এয়ার ইন্ডিয়া?'

সামনেই ভোট। তার আগে এয়ার ইন্ডিয়ার একাংশ কর্মীকে বিনা বেতনে পাঁচ বছর ছুটিতে পাঠানো নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারকে ‘নির্বাচনী’ হুঁশিয়ারি দিলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। 

বৃহস্পতিবার নবান্নে সাংবাদিক বৈঠকে তিনি বলেন, ‘কীভাবে পাঁচ বছর বেতন ছাড়াই কর্মীদের ছুটিতে পাঠাতে পারে এয়ার ইন্ডিয়া? (কেন্দ্রকে উদ্দেশ্য করে) ভুলে যাবেন না, সামনের পাঁচ বছরে ভোটের বছরও আছে। ভুলে যাবেন না, এটা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। আমি সকল রাজ্য এবং কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের লড়াইয়ের আর্জি জানাচ্ছি। বিজেপির শ্রমিক সংগঠনকেও আত্মসমর্পণ না করার অনুরোধ জানাচ্ছি।’

একইসঙ্গে কোল ইন্ডিয়া, রেলের মতো সংস্থায় বেসরকারি বিনিয়োগের দরজা খুলে দেওয়ায় নরেন্দ্র মোদী সরকারকে আক্রমণ শানান মমতা। তিনি বলেন, ‘শ্রমিকদের জন্য শ্রম আইন আছে। কীভাবে ওরা (বিজেপি সরকার) সব কর্মীদের গুঁড়িয়ে দিতে পারে? এই পরিস্থিতিতে (করোনাভাইরাস মহামারী) আপনারা (এয়ার ইন্ডিয়া হলেও আদতে কেন্দ্রের উদ্দেশ্যে) বলতে পারেন যে পাঁচ বছর বেতন দেওয়া হবে না? মানুষ টাকা চান। হকার থেকে ভাগচাষি - সবাই নগদ চান। কিন্তু নগদের জোগান নেই। ওদের (বিজেপি) লজ্জা হওয়া উচিত। ওরা কীভাবে মানুষের থেকে চাকরি ছিনিয়ে নিতে পারে? কীভাবে ১০০ শতাংশ বিদেশি বিনিয়োগে ছাড় দিতে পারে? এমনকী অভিজ্ঞ অর্থনীতিবিদরাও সাধারণ মানুষের হাতে টাকা দিতে বলছেন।’

মমতার বক্তব্য, সরকারের দায়িত্ব হল সাধারণ মানুষের ভালোমন্দের দেখভাল করা। কিন্তু উলটে ভয়ের আবহ তৈরি করেছে বিজেপি সরকার। তাঁর কথায়, ‘গণতান্ত্রিক শাসনে এটা কি গণতান্ত্রিক সরকার কাজ করছে? যদি বিশ্বাসযোগ্যতা নষ্ট হয়, তাহলে সবকিছু শেষ। প্রত্যেকে ভীত হয়ে আছেন, প্রত্যেক লজ্জিত হয়ে আছেন। এটা সাধারণ মানুষের যন্ত্রণা।’

বন্ধ করুন