বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ১২ বছরের প্রেমের পর প্রেমিকাকে বিয়ে করতে অস্বীকার, আদালতে নির্দেশে এক হল চার হাত
আদালতেই হল বিয়ে। 
আদালতেই হল বিয়ে। 

১২ বছরের প্রেমের পর প্রেমিকাকে বিয়ে করতে অস্বীকার, আদালতে নির্দেশে এক হল চার হাত

  • এর পর কৃষ্ণেন্দুর বিরুদ্ধে প্রতারণা ও বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সহবাসের অভিযোগ আনে তরুণী। অভিযোগ পেয়ে কৃষ্ণেন্দুকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

১২ বছর প্রণয়ের সম্পর্কের পর বিয়ে করতে অস্বীকার করেছিল প্রেমিক। বিচার চেয়ে পুলিশের দ্বারস্থ হয়েছিলেন প্রেমিকা। অবশেষে চার হাত এক হল ২ জনের। শুক্রবার উত্তর ২৪ পরগনার বনগাঁ জেলা দায়রা আদালতের ঘটনা। প্রেমিককে বিয়ে করে খুশি প্রেমিকা।

আইনজীবীরা জানিয়েছেন, বনগাঁর বাবুপাড়ার ২৭ বছরের যুবক কৃষ্ণেন্দু সাহার সঙ্গে বনগাঁ কুড়ির মাঠ এলাকার এক যুবতীর ১২ বছরের প্রণয়ের সম্পর্ক ছিল। মাস ছয়েক আগে বিয়ের প্রস্তাব নিয়ে কৃষ্ণেন্দুর বাড়ি যান যুবতীর পরিজনরা। অভিযোগ, পত্রপাঠ তাঁকে বিয়ে করতে অস্বীকার করেন যুবক। এই নিয়ে দুপক্ষের বিতণ্ডা শুরু হলে খবর যায় থানায়। পুলিশ গিয়ে তখনকার মতো ঝামেলা মেটায়।

এর পর কৃষ্ণেন্দুর বিরুদ্ধে প্রতারণা ও বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সহবাসের অভিযোগ আনে তরুণী। অভিযোগ পেয়ে কৃষ্ণেন্দুকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এর মধ্যে কৃষ্ণেন্দু তাঁর প্রেমিকাকে বিয়ে করতে রাজি বলে জানান আদালতে। আদালতের তরফে জানানো হয়, বিয়ে করলে তবেই মিলবে জামিন। অবশেষে শুক্রবার আদালতে ২ জনের বিয়ে হয়।

বিয়ের পর যুবতী জানান, আদালতের নির্দেশে বিয়ে হওয়ায় আমি খুশি। কৃষ্ণেন্দুর পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন, যুবতীকে বাড়ির বউমা হিসাবে মেনে নেবেন তাঁরা।

 

বন্ধ করুন