বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > স্ত্রীকে খুনের পর যৌনাঙ্গ কেটে আত্মহত্য়ার চেষ্টা স্বামীর
ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

স্ত্রীকে খুনের পর যৌনাঙ্গ কেটে আত্মহত্য়ার চেষ্টা স্বামীর

  • স্ত্রীকে হত্যা করায় যুধিষ্ঠিরকে ভর্ৎসনা করতে শুরু করেন স্থানীয়রা। তখন যৌনাঙ্গ কেটে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন ওই ব্যক্তি। স্থানীয়রা তাঁকেও তমলুক হাসপাতালে নিয়ে যান।

স্ত্রীকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে খুন করে যৌনাঙ্গ কেটে আত্মহতার চেষ্টা স্বামীর। ঘটনাটি ঘটেছে হলদিয়ার সুতাহাটা থানার বেগনাবেড়িয়া গ্রামে। মৃতের নাম নীলিমা সামন্ত, বয়স আনুমানিক ৪৮ বছর। কোন দিকে এই ঘটনায় স্বামী যুধিষ্ঠির সামন্ত আহত অবস্থায় তমলুক জেলা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, পারিবারিক অশান্তির কারণে কয়েকদিন ধরে অশান্তি চলছিল যুধিষ্ঠির ও নীলিমার মধ্যে। এদিন সন্ধ্যায় স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে তুমুল বিবাদ শুরু হয়। কিছুক্ষণ পর আর্তচিৎকার শুনে ছুটে যান প্রতিবেশীরা। দেখেনে, বাড়ির মধ্যে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে রয়েছন নীলিমাদেবী। স্থানীয়দের চেষ্টায় তাঁকে হলদিয়া মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে গেলে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা।

স্ত্রীকে হত্যা করায় যুধিষ্ঠিরকে ভর্ৎসনা করতে শুরু করেন স্থানীয়রা। তখন যৌনাঙ্গ কেটে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন ওই ব্যক্তি। স্থানীয়রা তাঁকেও তমলুক হাসপাতালে নিয়ে যান। গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তিনি। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় সুতাহাটা থানার পুলিশ। কী কারণে বিবাদ তা জানার চেষ্টা চালাচ্ছেন আধিকারিকরা। যুধিষ্ঠিরবাবুর মানসিক রোগের চিকিৎসা চলছিল বলে জানিয়েছেন পরিবারের এক সদস্য। তাঁর বিরুদ্ধে খুনের মামলা রুজু করে তদন্ত শুরু করেছেন আধিকারিকরা। হাসপাতাল থেকে সুস্থ হয়ে ছাড়া পেলেই তাঁকে গ্রেফতার করা হবে বলে সুতাহাটা থানা সূত্রে জানা গিয়েছে।

 

বন্ধ করুন