বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ‘‌আমি প্যারাসুটে নামিনি এবং লিফটেও উঠিনি’‌, আবারও বিস্ফোরক শুভেন্দু অধিকারী
শুভেন্দু অধিকারী (ছবি সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস বাংলা)
শুভেন্দু অধিকারী (ছবি সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস বাংলা)

‘‌আমি প্যারাসুটে নামিনি এবং লিফটেও উঠিনি’‌, আবারও বিস্ফোরক শুভেন্দু অধিকারী

  • রাজ্য–রাজনীতিতে এই মুহূর্তে জল্পনার তুঙ্গে শুভেন্দু অধিকারী। তাঁকে নিয়ে বারবার দলবদলের জল্পনা উঠেছে। তাঁর নানা মন্তব্য এই জল্পনার জন্ম দিয়েছে। এই সবের মধ্যে ফের বোমা ফাটালেন শুভেন্দু অধিকারী।

রাজ্য–রাজনীতিতে এই মুহূর্তে জল্পনার তুঙ্গে শুভেন্দু অধিকারী। তাঁকে নিয়ে বারবার দলবদলের জল্পনা উঠেছে। তাঁর নানা মন্তব্য এই জল্পনার জন্ম দিয়েছে। এই সবের মধ্যে ফের বোমা ফাটালেন শুভেন্দু অধিকারী। বললেন, ‘জনপ্রতিনিধি হতে গেলে ধৈর্য আর সহ্য এই দুটো ক্ষমতা থাকা দরকার। আমার সহ্য করার ক্ষমতা আছে তাই সহ্য করি। কোনও সমস্যা নেই। আপনাদের সঙ্গে ছিলাম, আছি, এবং ভবিষ্যতেও থাকব।’

আরও পড়ুন : বিজয়ার আমন্ত্রণপত্রে গেরুয়া ছোঁয়া, পাগড়ি পরলেন শুভেন্দু অধিকারী

শনিবার পূর্ব মেদিনীপুর জেলার নন্দীগ্রামে এক বিজয়া সম্মেলনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়েছিলেন শুভেন্দু। সেখানে কড়া ভাষায় তিনি বলেন, ‘‌আমি প্যারাসুটে নামিনি এবং লিফটেও উঠিনি। ছোটোলোকদের দিয়ে বাজে কথা বলিয়ে ভেবেছে আমি উত্তর দেব। কুকুর পায়ে কামড়ালে মানুষ কখনও কুকুরের পায়ে কামড়ায় না। আর যতক্ষণ না আমার মুখ থেকে কিছু শুনছেন এই বাজারি সংবাদপত্র পড়ে, টিভি দেখে কিছু ভাববেন না। নিজের কাজ নিজে করুন। কোভিডদের বিরুদ্ধে লড়াই করতে হবে। আমি নিজেই আক্রান্ত। আপনারা দোয়া করেছেন, আশীর্বাদ করেছেন, যত মন্দির আছে, মসজিদ আছে প্রার্থনা করেছেন আমার জন্য। আমি খুব খুশি।’‌

আরও পড়ুন : দিলীপ সহায়কের পোস্টে তোলপাড় বঙ্গ–বিজেপি, সরাসরি আঘাত কৈলাস–মুকুলকে

এই মন্তব্য নিয়েও রাজ্য–রাজনীতিতে জলঘোলা হতে শুরু করেছে। কারণ তিনি সিঁড়ি ভেঙে উপরে উঠেছেন বলে দাবি করেছেন। তাহলে প্যারাসুটে আর লিফটে কে ওঠানামা করলেন?‌ উঠছে প্রশ্ন। এই মন্তব্য কি ডায়মন্ড হারবারের সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের দিকে?‌ উঠছে প্রশ্ন। 

আরও পড়ুন : বিনয়–বিমল দ্বৈরথ থামাতে উদ্যোগী মুখ্যমন্ত্রী, বিনয় তামাংকে তলব নবান্নে

উল্লেখ্য, কয়েকদিন আগে সুকৌশলে পরিবহণ মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীকে বার্তা দেন ফিরহাদ হাকিম। শুভেন্দুর জেলায় দাঁড়িয়েই নাম না করে তাঁকে কটাক্ষের ছলে হুঁশিয়ারি পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রীর। এবার শুভেন্দু বলেন, 'তিন লাখ মেসেজ পেয়েছি দলমত-বর্ণ নির্বিশেষে। যাঁরা আমাকে ভোট দেয় না, সমর্থন করে না, মাইকে দাঁড়িয়ে গালাগালি করে, তারাও আমাকে মেসেজ করেছে। কেউ বলেছে তাড়াতাড়ি সুস্থ হয়ে উঠুন, কেউ বলছে গেট ওয়েল সুন। আর ফোন করেনি এমন কোনও লোক নেই। দু’‌একজন করেনি তাদের নাম আমি বলব না। বিপদ হয়ে যাবে। আর বাকি সবাই আমার জন্য করেছে। আমার মুসলিম ভাইয়েরাও করেছে।'

আরও পড়ুন : নির্বাচনী প্রস্তুতিতে ময়দানে নামছে তৃণমূল, প্রতিটি সভায় কড়া নজর পিকের

রাজ্যের মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী আগে বলেছিলেন, 'একক শক্তি দিয়ে কোনও কাজ কেউ করতে পারেন না। স্বামী বিবেকানন্দ এটা বলেছিলেন। স্বামী বিবেকানন্দ বলেছিলেন আমি, আমি করা হল সর্বনাশের মূল।' এই মন্তব্যকে ঘিরে জল্পনা শুরু হয় রাজ্য রাজনীতিতে। এবার তিনি বলেন, ‘‌কেউ কেউ আশ্চর্য হয়ে যায়, অতীত ভুলে যায়। ২০০৩ সালে সিপিএম থেকে এলি, আমি ঝান্ডা ধরালাম। ঘরের মধ্যে গুজুর গুজুর ফুসুর ফুসুর করলি। প্যারাসুটেও নামিনি, লিফটেও উঠিনি। সিঁড়ি ভাঙতে ভাঙতে উপরে উঠেছি। আমায় ওসব বলে কোনও লাভ হবে না।’ তিনি‌ আরও জানান, ১০ নভেম্বর ‘রক্তাক্ত সূর্যোদয়ের’ বর্ষপূর্তি। সেদিন গোকুলনগর হাইস্কুলের মাঠে সমাবেশ করবেন তিনি।

বন্ধ করুন