বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ‘‌যাক, মুর্শিদাবাদের কেউ নেই',BJP-তে শুভেন্দু -ঘনিষ্ঠদের না দেখে স্বস্তি তৃণমূলে
বিজেপিতে যোগদান শুভেন্দুর। (ছবি সৌজন্য এএনআই)
বিজেপিতে যোগদান শুভেন্দুর। (ছবি সৌজন্য এএনআই)

‘‌যাক, মুর্শিদাবাদের কেউ নেই',BJP-তে শুভেন্দু -ঘনিষ্ঠদের না দেখে স্বস্তি তৃণমূলে

  •  স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলল তৃণমূল।

তিনি জনপ্রিয়। কর্মীদের কাছে তিনি ‘দাদা'। তাই তো জেলাজুড়ে পড়েছিল ‘দাদার অনুগামী’-দের পোস্টার। এই পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল শনিবার দুপুরেও। কারণ দুপুর থেকেই টিভির মুখোমুখি হয়ে পড়েছিলেন কর্মীরা। মেজো নেতার কাঁধ উঁচিয়ে নিচুতলার কর্মীর এক চিলতে চাহনি, ছোটো নেতার হাতের তলা দিয়ে মাথা গলিয়ে টিভি দেখছেন দাপুটে কাউন্সিলর। আসলে বহরমপুর তৃণমূল কার্যালয় পৌঁছে গিয়েছিল মেদিনীপুর কলেজ মাঠে। একটা মুখই দেখতে উদ্দীপনা ছিল চরমে। হ্যাঁ, শুভেন্দু অধিকারী।

নিস্তব্ধতায় তৃণমূল কার্যালয়ের সবকটি চোখ। শনিবার শেষ দুপুর তাঁরা খুঁজছেন একটা মুখ - শুভেন্দু অধিকারী। ‘দাদা’-কে খুঁজে পাওয়ার পরে চোখ ঘুরতে থাকল অন্য চেনা মুখের খোঁজে। তবে শনিবার অন্তত শুভেন্দুর দলত্যাগের মঞ্চে জেলার সেই সব মুখ দেখা যায়নি, যাঁদের নিয়ে গুঞ্জন ছিল। জেলা তৃণমূলের সভাপতি আবু তাহের খানকে দেখা গেল দীর্ঘ নিঃশ্বাস ফেলে বলছেন, ‘‌যাক, মুর্শিদাবাদের কেউ নেই। নিশ্চিন্ত হওয়া গেল।’‌

ক’দিন আগেও মুর্শিদাবাদ জেলা পরিষদের সভাধিপতি মোশারফ হোসেন মণ্ডলের মুখে শোনা গিয়েছিল, ‘‌শুভেন্দুদা আমার রাজনৈতিক অভিভাবক। তিনি যা বলবেন, তাই হবে।’‌ এখন অবশ্য তিনি বলছেন, ‘‌আমি জেলার জন্য উন্নয়নের কাজে ব্যস্ত আছি। কে, কী করল আমার নজরে নেই।’‌ সম্ভাব্য দলত্যাগীদের এহেন বার্তায় জেলা তৃণমূলের এক প্রবীণ নেতা বলছেন, ‘‌সংখ্যালঘু অধ্যুষিত মুর্শিদাবাদ থেকে সহজে কেউ বিজেপিতে যাবে না। কারণ বিজেপি’র ভবিষ্যৎ সম্পর্কে তাঁদের ধারণা আছে।’‌ তবে, দলের অন্দরের খবর, ‘দাদার অনুগামী’-দের অনেকেই অদূর ভবিষ্যতে দল বদল করবেন।

বন্ধ করুন