বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > বাংলাদেশের অনুপ্রবেশকারীদের রোখার জন্য এই পরিবর্তন হবে, বোলপুরে ঘোষণা শাহের
বোলপুরে রোজ শো অমিত শাহের। (ছবি সৌজন্য, টুইটার @AmitShah)
বোলপুরে রোজ শো অমিত শাহের। (ছবি সৌজন্য, টুইটার @AmitShah)

বাংলাদেশের অনুপ্রবেশকারীদের রোখার জন্য এই পরিবর্তন হবে, বোলপুরে ঘোষণা শাহের

  • বীরভূমের তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলের গড়ে রীতিমতো শক্তি প্রদর্শন করে বিজেপি।

লোকসভা নির্বাচনেও বাংলায় ‘অনুপ্রবেশ’ কৌশল নিয়েছিলেন। আগামী বছর বিধানসভা ভোটের আগে সেই একই বিষয় ধরে আক্রমণের সুর আরও চড়ালেন অমিত শাহ। বললেন, বিধানসভা ভোটে তৃণমূল কংগ্রেস সরকারকে হারানো নিছক পরিবর্তন হবে না, বরং বাংলাদেশের অনুপ্রবেশকারীদের আটকানোর পরিবর্তন হবে।

রবিবার বোলপুরের ডাকবাংলো মোড় থেকে বোলপুর চৌরাস্তা পর্যন্ত রোড শো করেন শাহ। দেড় কিলোমিটারের কম রাস্তা যেতেই এক ঘণ্টার বেশি সময় লেগে যায়। বীরভূমের তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলের গড়ে রীতিমতো শক্তি প্রদর্শন করে বিজেপি। চারিদিকে ছিল গেরুয়া পতাকা, গেরুয়া বেলুন। স্থানীয় জনতা ছাড়াও পার্শ্ববর্তী জেলাগুলি থেকেও অসংখ্য মানুষ এসেছিলেন। রাস্তার পাশের বাড়ির ছাদের, জানালা, বারান্দায় দেখা যাচ্ছিল অসংখ্য ঔৎসুক মুখ। সেই রোড শো'র প্রভাব কতটা আগামী বছর ভোটবাক্সে পড়বে, তা সময় বলবে। তবে সেই শক্তি প্রদর্শনে রীতিমতো স্বস্তি পেয়েছেন বঙ্গ বিজেপি নেতারা। খোশমেজাজে দেখা গিয়েছে শাহকেও।

যদিও রোড শো'র শেষে সেই খোশমেজাজ বদলে যায় আক্রমণাত্মক ভঙ্গিমায়। দাবি করেন, যা ভিড় হয়েছে, তা থেকে তিনি নিশ্চিত যে ২০২১ সালে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে বাংলা সরকার গড়তে চলেছে বিজেপি। সঙ্গে বলেন, ‘এই পরিবর্তন শুধুমাত্র মুখ্যমন্ত্রী পালটানোর পরিবর্তন নয়। তৃণমূল কংগ্রেসের সরকারের পরিবর্তে ভারতীয় জনতা পার্টির সরকার তৈরির উদ্দেশ্য নয়। বাংলায় যে পরিবর্তন হতে চলেছে, তা বাংলার উন্নয়নের জন্য পরিবর্তন, বাংলাকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য পরিবর্তন। এই পরিবর্তন হবে বাংলাদেশ থেকে যে অনুপ্রবেশকারীরা ভারতে আসে, তাদের আটকানোর পরিবর্তন।'

সেই কড়া বার্তা দিলেও নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন প্রয়োগ নিয়ে কোনও মন্তব্য করতে চাননি শাহ। রাজ্যে বিজেপির কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয়, বিজেপির সর্বভারতীয় সহ–সভাপতি মুকুল রায়রা যখন জোর গলায় বলছেন, নয়া শুরু থেকেই সেই প্রক্রিয়া শুরু হবে, তখন বিষয়টি পুরোপুরি এড়িয়ে যান কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। জানান, রোড শো'র মধ্যে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন আলোচনার বিষয় নয়।

তবে শুধু উন্নয়নের ত্বরান্বিত করা বা বাংলাদেশি অনুপ্রবেশকারীদের রোখা নয়, আরও কয়েকটি কারণে পরিবর্তনের সওয়াল করেন শাহ। বলেন, 'যে পরিবর্তন হবে, তা রাজনৈতিক হিংসাকে শেষ করার পরিবর্তন হবে। এই যে টোল ট্যাক্স (পড়ুন কাটমানি) নেওয়া হয়, তা তুলে দেওয়ার পরিবর্তন। তোলাবাজি বন্ধ করার পরিবর্তন এটা। আর এটা ভাইপোর দাদাগিরি শেষ করার পরিবর্তন।’

বন্ধ করুন