বাড়ি > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > মতুয়া ধর্মগুরুদের বিরুদ্ধে কুরুচিকর মন্তব্য করায় ত্রিপুরায় গ্রেফতার ১
ঠাকুরনগর ঠাকুরবাড়ি। 
ঠাকুরনগর ঠাকুরবাড়ি। 

মতুয়া ধর্মগুরুদের বিরুদ্ধে কুরুচিকর মন্তব্য করায় ত্রিপুরায় গ্রেফতার ১

  • এই নিয়ে ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেন মতুয়া মহাসংঘের সংঘাধিপতি তথা বনগাঁর বিজেপি সাংসদ শান্তনু ঠাকুর। দেখা করেন রাজ্যপালের সঙ্গে। গোটা বিষয়টি তাঁকে বুঝিয়ে বলেন তিনি। এর পর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে বিষয়টি জানান রাজ্যপাল।

মতুয়া ধর্মগুরু হরিচাঁদ – গুরুচাঁদকে নিয়ে কুরুচিকর মন্তব্যের জন্য ত্রিপুরায় গ্রেফতার হল এক ব্যক্তি। শনিবার কুলদীপ চক্রবর্তী নামে ওই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে ত্রিপুরা পুলিশ। উত্তর ত্রিপুরা জেলার বাসিন্দা কুলদীপের মন্তব্য ঘিরে দিন কয়েক ধরে ক্ষোভে ফুঁসছিলেন গোটা বিশ্বের মতুয়ারা। বিক্ষোভ আঁচ করে বিজেপি শাসিত ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবকে ব্যবস্থা গ্রহণের পরামর্শ দেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। ত্রিপুরা সরকার সূত্রে খবর, গত ২২ জুলাই তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। 

ফেসবুকে ফেক অ্যাকাউন্ট খুলে কুলদীপের করা মন্তব্য নিয়ে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য বিজেপি নেতাদের ওপর চাপ ক্রমেই বাড়ছিল। কেন বিজেপিশাসিত রাজ্যে বসে হরিচাঁদ-গুরুচাঁদকে নিয়ে কুরুচিকর মন্তব্য করে কেউ পার পেয়ে যাবে বার বার সেই প্রশ্ন তুলছিল তৃণমূল। যার কোনও জবাব ছিল না বিজেপি নেতাদের কাছে। 

এই নিয়ে ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেন মতুয়া মহাসংঘের সংঘাধিপতি তথা বনগাঁর বিজেপি সাংসদ শান্তনু ঠাকুর। দেখা করেন রাজ্যপালের সঙ্গে। গোটা বিষয়টি তাঁকে বুঝিয়ে বলেন তিনি। এর পর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে বিষয়টি জানান রাজ্যপাল। তার পরই পদক্ষেপ করেন অমিত শাহ। 

জানা গিয়েছে, ত্রিপুরার এডি নগর থানায় গত ২০ জুলাই কুলদীপ চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ দায়ের হয়। ২২ জুলাই গ্রেফতার করা হয় তাকে। 

শান্তনু ঠাকুর জানিয়েছেন, মতুয়াদের আবেগ নিয়ে ছিনিমিনি খেলছে তৃণমূল। তাই কল্যাণীর এক মহিলা কুলদীপের মন্তব্যকে সমর্থন করলেও তার বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার।

 

বন্ধ করুন