বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ৬০ লক্ষ টাকার ‘সোনার বাট’ ২০ লক্ষ টাকায় বিক্রি করতে এসে ধরা পড়ল ২ প্রতারক
ভুয়ো সোনার বাটটি উদ্ধার করেছে নিউ জলপাইগুড়ি থানার পুলিশ।
ভুয়ো সোনার বাটটি উদ্ধার করেছে নিউ জলপাইগুড়ি থানার পুলিশ।

৬০ লক্ষ টাকার ‘সোনার বাট’ ২০ লক্ষ টাকায় বিক্রি করতে এসে ধরা পড়ল ২ প্রতারক

  • গোপন সূত্রে খবর পেয়ে সোমবার নিউ জলপাইগুড়ি থানার পুলিশ সাদা পোশাকে তিনবাত্তি মোড় এলাকায় অভিযান চালায়। সেখানেই দুই যুবককে অহেতুক ঘোরাফেরা করতে দেখে সন্দেহ হয় তাদের।

প্রায় দেড় কেজি ওজনের নকল সোনার বাট উদ্ধার করল পুলিশ নিউ জলপাইগুড়ি থানার পুলিশ। সোমবার প্রতারণা চক্রের ২ পাণ্ডাকে গ্রেফতার করেন আধিকারিকরা।

গোপন সূত্রে খবর পেয়ে সোমবার নিউ জলপাইগুড়ি থানার পুলিশ সাদা পোশাকে তিনবাত্তি মোড় এলাকায় অভিযান চালায়। সেখানেই দুই যুবককে অহেতুক ঘোরাফেরা করতে দেখে সন্দেহ হয় তাদের। জিজ্ঞাসাবাদ করতেই বেরিয়ে আসে আসল তথ্য। তাদের কাছ থেকে উদ্ধার হয় একটি নকল সোনার বাট। যার ওজন ১ কেজি ৩৭৩ গ্রাম।

পুলিশ সূত্রে খবর, ২০ লক্ষ টাকায় ওই বাটটি বিক্রির উদ্দেশ্যে জড়ো হয়েছিল প্রতারকরা। ধৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ করে জানা গিয়েছে, জমি চাষ করতে গিয়ে মাটি থেকে এই বাটটি তারা পেয়েছে বলে এক ব্যক্তিকে জানায় ২ প্রতারক। এলাকায় কারও অত দামি জিনিস কেনার ক্ষমতা নেই বলে ভিনরাজ্যে বিক্রির চেষ্টা চালাচ্ছে বলে জানিয়েছিল তারা। প্রতারকদের প্রস্তাবে সোনার বাটটি ২০ লক্ষ টাকায় কিনতে রাজি হন শিলিগুড়ির এক ব্যবসায়ী। 

ওদিকে গোপন সূত্রে খবর পেয়ে ফাঁদ পাতে পুলিশ। ধৃতরা অসমের সোনিতপুর জেলার ঘোড়ামারির বাসিন্দা জমির আলি ও পশ্চিম মেদিনীপুরের বাসিন্দা আরফান শেখ। পুলিশের দাবি, সোনার বাটটি আসল হলে বাজারমূল্য ছিল প্রায় ৬০ লক্ষ টাকা।

 

বন্ধ করুন