বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > আদি তৃণমূলের মাথা ফাটাল নব্য তৃণমূল, ব্লক সভাপতির দাবি পারিবারিক বিবাদ
শনিবার সন্ধ্যায় কেশপুরে আহত ১ তৃণমূলকর্মী।
শনিবার সন্ধ্যায় কেশপুরে আহত ১ তৃণমূলকর্মী।

আদি তৃণমূলের মাথা ফাটাল নব্য তৃণমূল, ব্লক সভাপতির দাবি পারিবারিক বিবাদ

  • হামলাকারীরা চলে গেলে গুরুতর আহত অবস্থায় দুজনকে উদ্ধার করে প্রথমে কেশপুর গ্রামীণ হাসপাতালে, পরে সেখান থেকে মেদিনীপুর মেডিক্যালে পাঠানো হয়।

আবারও কেশপুরে তৃণমূলের গোষ্ঠী সংঘর্ষের অভিযোগ। নব্য তৃণমূল কর্মীদের হাতে আক্রান্ত হয়ে মেদিনীপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি ২ পুরনো তৃণমূল কর্মী। তবে দলীয় নেতৃত্ব একে পারিবারিক বিবাদ বলে চালানোর চেষ্টায় রয়েছে।

ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার রাত সাড়ে আটটা নাগাদ কেশপুর ব্লকের আনন্দপুর থানার জগন্নাথপুর গ্রামে। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, শুক্রবার রাত আটটা নাগাদ এলাকার একটি দোকানে বসে চা খাচ্ছিলেন শাহিদুল রহমান ও শেখ আসেফ আলি। সেই সময় হঠাৎ ১৫ - ২০ জন এসে অতর্কিতে দুজনের উপর হামলা চালায়। রড, বাঁশ, লাঠি দিয়ে বেধড়ক মারধর করা হয় দুজনকে। স্থানীয়রা তাদের বাধা দিলে উদ্ধার করতে গেলে তাদেরও বাধা দেয় আক্রমনকারীরা। 

হামলাকারীরা চলে গেলে গুরুতর আহত অবস্থায় দুজনকে উদ্ধার করে প্রথমে কেশপুর গ্রামীণ হাসপাতালে, পরে সেখান থেকে মেদিনীপুর মেডিক্যালে পাঠানো হয়। স্থানীয় তৃণমূল কর্মীদের অভিযোগ, যাকে কেশপুরে ভোটে জিতিয়ে এনেছি, সেই বহিরাগতর (পড়ুন শিউলি সাহার) নির্দেশে ব্লক সভাপতি উত্তমানন্দ ত্রিপাঠী BJP থেকে আসা নব্য তৃণমূল কর্মীদের নিয়ে পুরানো তৃণমূল কর্মীদের উপর হামলা চালিয়েছে।

যদিও উত্তমানন্দবাবু এই অভিযোগ অস্বীকার করে বলেছেন, এটা সম্পূর্ণ পারিবারিক বিবাদ। জমি জায়গা নিয়ে পরিবারের মধ্যে বিবাদ চলছিল। এর সঙ্গে দলের কেউ কোনো ভাবে জড়িত নেই। অঞ্চল সভাপতি বিশ্বজিৎ বড়দোলই সবটাই জানেন।

 

বন্ধ করুন