বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > আলোর উৎসবে নেমে এল অন্ধকার, কালনায় বিধ্বংসী আগুনে পুড়ে ছাই ২০টি কাঁচা বাড়ি
প্রতীকী ছবি
প্রতীকী ছবি

আলোর উৎসবে নেমে এল অন্ধকার, কালনায় বিধ্বংসী আগুনে পুড়ে ছাই ২০টি কাঁচা বাড়ি

  • শনিবার পূর্ব বর্ধমানের কালনার কৈলাসপুর গ্রামে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে পুড়ে ছাই গেল ২০টি কাঁচা বাড়ি। আগুনের তীব্রতা এতটাই ছিল যে তা সামাল দিতে হিমশিম খায় দমকলের ৩টি ইঞ্জিন। পরে আরও দুটি ইঞ্জিন আসে ঘটনাস্থলে।

দীপাবলি উপলক্ষে প্রদীপের শিখার আগুনে আলোকিত গোটা দেশ। আর এমন সময় আগুনেরই লেলিহান শিখা কেড়ে নিল ২০টি পরিবারের সর্বস্ব। শনিবার পূর্ব বর্ধমানের কালনার কৈলাসপুর গ্রামে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে পুড়ে ছাই গেল ২০টি কাঁচা বাড়ি। আগুনের তীব্রতা এতটাই ছিল যে তা সামাল দিতে হিমশিম খায় দমকলের ৩টি ইঞ্জিন। পরে আরও দুটি ইঞ্জিন আসে ঘটনাস্থলে।

এদিন দুপুরে বাড়িতে রান্না করছিলেন কোহিনুর বিবি। কৈলাসপুরের ছোট গ্রামে তখন কালীপুজোর উৎসবের মেজাজ। হঠাৎই কোহিনুর বিবির বাড়িতে আগুন ধরে যায়। শীতকালের মরশুম, তার ওপর হাওয়ার গতিবেগ ছিল অনেকটাই বেশি। আর তা–ই হল কাল। দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে আগুন। মুহূর্তে আগুন ধরে যায় ২০টি কাঁচা বাড়িতে। আগে থাকতে সকলে সাবধান হয়ে ঘর থেকে বেরিয়ে পড়ায় কোনও হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। কিন্তু পুড়ে ছাই হয়ে গিয়েছে বাড়ির সবকিছু।

দমকলে খবর দেওয়ার পাশাপাশি গ্রামবাসীরা নিজেরাই আগুন নেভানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু তাতে তেমন লাভ হয়নি। একের পর এক দমকলের ইঞ্জিন পৌঁছতে থাকে। কয়েক ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন আয়ত্তে আনা সম্ভব হয়। কিন্তু আগুনে সর্বস্ব হারিয়েছে হতদরিদ্র পরিবারগুলি। বইখাতা, টাকাপয়সা, আসবাবপত্র, জামাকাপড়, টাকাপয়সা— সব কিছু পুড়ে ছাই হয়ে গিয়েছে। মাথার ওপর থেকে ছাদ হারিয়ে দুশ্চিন্তায় পড়েছেন গ্রামবাসীরা। তাঁদের পাশে থাকার আশ্বাস দিয়েছে প্রশাসন।

বন্ধ করুন