বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > অভিনব কায়দায় জালিয়াতি উত্তরপ্রদেশে, শেষে দুর্গাপুরে গ্রেফতার জামতাড়া গ্যাঙের ৪
দুর্গাপুরে গ্রেফতার জামতাড়া গ্যাঙের ৪

অভিনব কায়দায় জালিয়াতি উত্তরপ্রদেশে, শেষে দুর্গাপুরে গ্রেফতার জামতাড়া গ্যাঙের ৪

  • পুলিশ জানিয়েছে ধৃতদের কাছ থেকে ১ লক্ষ ৯৫ হাজার ৭০ টাকা মূল্যের ৩৪.৫৬০ গ্রাম সোনা, ৪টি মোবাইল ফোন ও একটি বাইক উদ্ধার হয়েছে।

উত্তরপ্রদেশের গোরক্ষপুরে জালিয়াতি করে বাংলায় চলে এসেছিল জালিয়াতরা। তবে শেষ রক্ষা হল না। দুর্গাপুরে পুলিশের হাতে ধরা পড়ল কুখ্যাত জামতাড়া গ্যাঙের ৪ সদস্য। পুলিশের হাত থেকে রক্ষা পেতে খুবই জটিল প্রক্রিয়াতে জালিয়াতি করত জামতাড়া গ্যাঙের এই ৪ সদস্য। তবে শেষ পর্যন্ত শুক্রবার দুর্গাপুর সিসিটি সেন্টার থানার পুলিশ তাদের গ্রেফতার করে। ধৃতদের নাম বিনোদ পাত্র, অঞ্জনা সিং, কাজল সিং ও নাইমূল হক। এর মধ্যে নাইমূল জামতাড়ার বাসিন্দা। বাকি তিনজন জামুড়িয়ার শ্রীপুর কলোনির বাসিন্দা।

পুলিশ জানিয়েছে ধৃতদের কাছ থেকে ১ লক্ষ ৯৫ হাজার ৭০ টাকা মূল্যের ৩৪.৫৬০ গ্রাম সোনা, ৪টি মোবাইল ফোন ও একটি বাইক উদ্ধার হয়েছে। শনিবারই ধৃতদের পেশ করা হয় আদালতে। আজালতের তরফে ধৃতদের পাঁচদিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দেওয়া হয়। পুলিশ জেরা জারি রেখেছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, সাধারণ মানুষকে ফোন করে বোকা বানিযে টাকা হাতিয়ে নিত ধৃতরা। পরে সেই টাকা পেটিএমে জমা করে তা দিয়ে গিফট ভাউচার কেনা হত। সেই ভআউচার দেখিয়ে এরপর কেনা হত সোনা। পরে সেই সোনা বিক্রি করা হত অন্য এক দোকানে। যাতে পুলিশ জালিয়াতির টাকার সূত্র ধরে তদন্ত না চালাতে পারে, তাই এই জটিল প্রক্রিয়ায় জালিয়াতি করা হত।

জানা গিয়েছে, কয়েকদিন আগেই উত্তরপ্রদেশের গোরক্ষপুরের একটি সোনার গয়নার দোকান থেকে গিফট ভাউচার কেনে জালিয়তরা। তারপর সেই গিফট ভাউচার দেখিয়ে ওই সংস্থারই আসানসোলের একটি শোরুম থেকে সোনা কেনে দুষ্কৃতীরা। সেই সোনার গয়না শুক্রবার দুর্গাপুর সিটিসেন্টারের এক দোকানে বিক্রি করতে এলে ধরা পড়ে তারা। দোকানের কর্মচারীদের থেকে খবর পেয়েই সেখানে গিয়ে জালিয়াতদের হাতেনাতে গ্রেফতার করে পুলিশ।

বন্ধ করুন