বাড়ি > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > করোনা হাসপাতালের ওয়ার্ডে গিয়ে রোগী দেখতে নারাজ জলপাইগুড়ির ৬ চিকিৎসক
প্রতীকি ছবি
প্রতীকি ছবি

করোনা হাসপাতালের ওয়ার্ডে গিয়ে রোগী দেখতে নারাজ জলপাইগুড়ির ৬ চিকিৎসক

  • জলপাইগুড়ি জেলা স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে জানানো হয়েছে, রাজ্য সরকারের তৈরি ওই ৬ সদস্যের চিকিৎসকদলের সঙ্গে সম্প্রতি বৈঠকে বলেন জেলার স্বাস্থ্য আধিকারিকরা।

করোনা পরিস্থিতিতে যখন দেশজুড়ে ত্রাহিরব তখন হাসপাতালের ওয়ার্ডে গিয়ে রোগী দেখতে অস্বীকার করলেন চিকিৎসকরা। দূর দূরান্তে কোথাও নয়। এই ঘটনা ঘটেছে পশ্চিমবঙ্গেরই জলপাইগুড়িতে। জলপাইগুড়ি করোনা হাসপাতালের ওয়ার্ডে গিয়ে রোগী দেখা সম্ভব নয় বলে জানিয়ে দিয়েছেন ৬ চিকিৎসক। দিন কয়েক আগে করোনা চিকিৎসার জন্য ওই ৬ চিকিৎসককে দিয়ে বিশেষ দল তৈরি করেছিল রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর। 

জলপাইগুড়ি জেলা স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে জানানো হয়েছে, রাজ্য সরকারের তৈরি ওই ৬ সদস্যের চিকিৎসকদলের সঙ্গে সম্প্রতি বৈঠকে বলেন জেলার স্বাস্থ্য আধিকারিকরা। সেখানে ৬ চিকিৎসকের প্রত্যেকেই ওয়ার্ডে গিয়ে রোগী দেখা সম্ভব নয় বলে জানিয়ে দিয়েছেন। তাঁদের দাবি, তাঁদের প্রত্যেকের নির্দিষ্ট শারীরিক সমস্যা রয়েছে। যার ফলে ওয়ার্ডে গিয়ে রোগী দেখা সম্ভব নয় তাঁদের পক্ষে। বদলে সেফ হোম ও হোম আইসোলেশনে থাকা রোগীদের ফোনে পরামর্শ দিতে পারেন তাঁরা। 

জেলার করোনা চিকিৎসার নোডাল অফিসার সুশান্ত রায় বলেন, ৬ চিকিৎসকের কেউ ওয়ার্ডে গিয়ে রোগী দেখতে রাজি নন। কিন্তু সরকারি নির্দেশিকায় স্পষ্ট লেখা রয়েছে যে ওয়ার্ডে গিয়েই রোগী দেখতে হবে। চিকিৎসকরা তাঁদের শারীরিক অসুস্থতার করা জানিয়েছেন। আমি তা তাঁদের লিখিত আকারে জমা দিতে বলেছি। তাঁদের বক্তব্য স্বাস্থ্য ভবনে পাঠিয়ে দেব। 

জলপাইগুড়ি করোনা হাসপাতালে চিকিৎসকরা ওয়ার্ডে গিয়ে রোগী দেখছেন না বলে অভিযোগ উঠেছিল। তার পর করোনার চিকিৎসার জন্য ৬ সদস্যের বিশেষ দল তৈরি করে স্বাস্থ্য দফতর।

 

বন্ধ করুন