বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > 6th Pay Commission DA Caveat in SC: ‘কঠিন’ হল রাজ্যের কাজ, সুপ্রিম কোর্টে পৌঁছাল DA মামলা, সামনে এল নয়া আপডেট

6th Pay Commission DA Caveat in SC: ‘কঠিন’ হল রাজ্যের কাজ, সুপ্রিম কোর্টে পৌঁছাল DA মামলা, সামনে এল নয়া আপডেট

6th Pay Commission DA Caveat: ডিএ মামলায় সুপ্রিম কোর্টে ক্যাভিয়েট দাখিল করল রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের সংগঠন। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্যে ব্লুমবার্গ)

6th Pay Commission DA Caveat: মহার্ঘ ভাতা (ডিয়ারনেস অ্যালোওয়েন্স বা ডিএ) মামলায় সুপ্রিম কোর্টে ক্যাভিয়েট দাখিল করল দুটি রাজ্য সরকারি কর্মচারী সংগঠন। অর্থাৎ রাজ্য যদি সুপ্রিম কোর্টে যায়, তাহলে ওই দুটি সরকারি সংগঠনের কাছেও মামলার কপি যাবে।

ডিএ মামলায় সুপ্রিম কোর্টে ক্যাভিয়েট দাখিল করল রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের সংগঠন। মঙ্গলবার কনফেডারেশন অফ স্টেট গভর্নমেন্ট এমপ্লয়িজ এবং ইউনিটি ফোরামের তরফে শীর্ষ আদালতে দুটি পৃথক ক্যাভিয়েট দাখিল করা হয়েছে। দুই রাজ্য সরকারি কর্মচারী সংগঠনের আইনজীবী হলেন রউফ রহিম।

গত বৃহস্পতিবার মহার্ঘ ভাতা (ডিয়ারনেস অ্যালোওয়েন্স বা ডিএ) মামলায় রাজ্য সরকারের রিভিউ পিটিশন খারিজ করে দিয়েছে কলকাতা হাইকোর্ট। যদিও হাইকোর্টে ধাক্কা খাওয়ার পর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার যে সুপ্রিম কোর্টে যাবে, তা নিয়ে কার্যত নিশ্চিত সরকারি কর্মচারীদের সংগঠনগুলি। সেই পরিস্থিতিতে আগেভাগেই শীর্ষ আদালতে ক্যাভিয়েট করে রেখেছে ফোরাম এবং কনফেডারেশন।

আরও পড়ুন: Calcutta HC on 6th Pay Commission DA: কেন বকেয়া ৩১% DA মেটানো হয়নি? মুখ্যসচিব ও অর্থসচিবের হলফনামা তলব হাইকোর্টের

DA মামলার ইতিবৃত্ত

  • ডিএয়ের দাবিতে ২০১৬ সালে স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইবুনালে (স্যাট) মামলা দায়ের করেছিল রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের সংগঠন কনফেডারেশন।
  • স্যাটে সেই মামলায় ধাক্কা খেয়েছিলেন রাজ্য সরকারি কর্মচারীরা। রাজ্য সরকারের তরফে দাবি করা হয়েছিল, ডিএ বা মহার্ঘ ভাতা সরকারি কর্মীদের আইনি অধিকার নয়। যা স্যাটে মান্যতা পেয়েছিল।
  • স্যাটের রায়কে চ্যালেঞ্জ করে ২০১৮ সালে কলকাতা হাইকোর্টে মামলা দায়ের করেছিল সরকারি কর্মচারীদের সংগঠন। হাইকোর্টে ধাক্কা খেয়েছিল রাজ্য সরকার।
  • বিচারপতি দেবাশিস করগুপ্ত এবং বিচারপতি শেখর ববি শরাফের ডিভিশন বেঞ্চ জানিয়েছিল, ডিএ সরকারি কর্মচারীদের আইনি অধিকার, তা মোটেও সরকারের দয়ার দান নয়। সেইসঙ্গে রায় পুনর্বিবেচনার জন্য মামলাটি স্যাটে ফেরত পাঠিয়েছিল হাইকোর্ট।
  • ২০১৯ সালে রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের পক্ষে রায় দিয়েছিল স্যাট। সেইসময় রাজ্য সরকারকে ছ'মাসের মধ্যে সরকারি কর্মচারীদের বকেয়া মহার্ঘ ভাতা মিটিয়ে দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল।
  • স্যাটের সেই রায়কে চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে মামলা দায়ের করেছিল রাজ্য সরকার। চলতি বছর ২৯ এপ্রিল হাইকোর্টে মামলার শুনানি হয়েছিল। তারপর ২০ মে হাইকোর্ট রায় দিয়েছিল, তিন মাসের মধ্যে রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের বকেয়া ডিএ দিতে হবে রাজ্য সরকারকে।
  • যদিও সেই সময়সীমা শেষ হওয়ার দিনকয়েক আগে হাইকোর্টে রিভিউ পিটিশন দাখিল করেছিল রাজ্য সরকার। চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহে সেই মামলার শুনানি শুরু হয়। ৯ সেপ্টেম্বর শেষ হয় সেই রিভিউ পিটিশনের সওয়াল-জবাব। তারপর ২২ সেপ্টেম্বর হাইকোর্টে ধাক্কা খায় রাজ্য সরকার। খারিজ হয়ে যায় রাজ্য সরকারের রিভিউ পিটিশন। বহাল রাখা হয় ২০ মে'র রায়। অর্থাৎ তিন মাসের মধ্যে রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের বকেয়া ডিএ মিটিয়ে দিতে হবে।

আরও পড়ুন: State Govt on 6th Pay Commission DA Case: বকেয়া DA মামলায় কি সুপ্রিম কোর্টে যাবে না রাজ্য সরকার? মুখ খুললেন অর্থমন্ত্রী

  • তারইমধ্যে হাইকোর্টের নির্দেশ মতো বকেয়া ডিএ মিটিয়ে না দেওয়ায় রাজ্যের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার মামলা দায়ের করেছে কনফেডারেশন, ফোরাম এবং সরকারি কর্মচারী পরিষদ। সেই মামলার ভিত্তিতে আগামী ৪ নভেম্বরের মধ্যে মুখ্যসচিব এবং অর্থসচিবকে হাইকোর্টে হলফনামা পেশ করতে হবে। তারপর আগামী ৯ নভেম্বর শুনানি হবে বলে জানানো হয়েছে।
  • সেই মামলার শুনানির আগে সুপ্রিম কোর্টে ক্যাভিয়েট দাখিল করে রাখল কনফেডারেশন এবং ফোরাম। অর্থাৎ রাজ্য যদি সুপ্রিম কোর্টে যায়, তাহলে ওই দুটি সরকারি সংগঠনের কাছেও মামলার কপি যাবে।

বন্ধ করুন