বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Sexual abuse in Hooghly: কম্পিউটার শিক্ষকের যৌন লালসার শিকার ৯ বছরের নাবালিকা, গ্রেফতার শিক্ষক
নাবালিকাকে যৌন নির্যাতন। প্রতীকী ছবি সৌজন্যে গেটি ইমেজ। (HT_PRINT)

Sexual abuse in Hooghly: কম্পিউটার শিক্ষকের যৌন লালসার শিকার ৯ বছরের নাবালিকা, গ্রেফতার শিক্ষক

  • শনিবার দুপুরে কম্পিউটার শেখানোর জন্য ৯ বছরের ওই নাবালিকাকে ডেকে নিয়ে যায় সুরজ। সেখানে রয়েছে সুরজের দিদির ফ্ল্যাট। ঘটনার সময় সুরজের দিদি এবং জামাইবাবু ফ্ল্যাটে ছিলেন না। সেই সুযোগে তখন ওই নাবালিকাকে দিদির ফ্ল্যাটে নিয়ে গিয়ে সুরজ যৌন নির্যাতন চালায় বলে অভিযোগ।

বেহালার পর এবার উত্তর পাড়ায় শিক্ষকের যৌন লালসার শিকার হল এক ছাত্রী। কম্পিউটার ক্লাস করাতে গিয়ে ৯ বছরের এক ছাত্রীকে যৌন নির্যাতন করল শিক্ষক। ঘটনাটি হুগলির উত্তরপাড়ার। ইতিমধ্যেই ঘটনায় সুরজ শা নামে অভিযুক্ত শিক্ষককে গ্রেফতর করেছে পুলিশ। তার বিরুদ্ধে পকসো আইনে মামলা রুজু হয়েছে। অভিযোগ প্রমাণিত হলে সে ক্ষেত্রে সুরজকে কঠোর শাস্তি দেওয়া উচিত বলেই দাবি জানিয়েছে তার এক আত্মীয়।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, উত্তরপাড়ার শ্রীরামপুরের একটি আবাসনে পরিবারের সঙ্গে থাকে ওই নাবালিকা। আবাসনের নিচের তলায় কম্পিউটার শিখত। বালিগঞ্জের বাসিন্দা সুরজ তাকে কম্পিউটার শেখাতো। শনিবার দুপুরে কম্পিউটার শেখানোর জন্য ৯ বছরের ওই নাবালিকাকে ডেকে নিয়ে যায় সুরজ। সেখানে রয়েছে সুরজের দিদির ফ্ল্যাট। ঘটনার সময় সুরজের দিদি এবং জামাইবাবু ফ্ল্যাটে ছিলেন না। সেই সুযোগে তখন ওই নাবালিকাকে দিদির ফ্ল্যাটে নিয়ে গিয়ে সুরজ যৌন নির্যাতন চালায় বলে অভিযোগ।

এদিকে, দীর্ঘক্ষণ কেটে যাওয়ার পরেও নাবালিকা ঘরে না ফেরায় তার দিদিমা তাকে কম্পিউটার ক্লাসে খুঁজতে যান। কিছুক্ষণের মধ্যে কাঁদতে কাঁদতে নিচে নেমে আসে ওই নাবালিকা। তাকে কারণ জিজ্ঞেস করতেই সে দিদিমাকে সবকিছু খুলে বলে। মাকেও সে জানায়। এরপরে ওই যুবকের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করে নাবালিকার পরিবার। অভিযোগ পাওয়ার পরেই পুলিশ অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে। তার বিরুদ্ধে পকসো আইনে মামলা রুজু হয়েছে। এদিকে, বিষয়টি জানার পর এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়ায়। অভিযুক্ত শিক্ষকের শাস্তির দাবি জানান স্থানীয়রা। যুবকের জামাইবাবু জানিয়েছেন, অভিযোগ প্রমাণিত হলে তিনিও চান শাস্তি দেওয়া হোক।

বন্ধ করুন