বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > দেওয়ালের মধ্যে গাঁথা বিশাল সিন্দুক, বাড়ি ভাঙতে গিয়ে চোখ ছানাবড়া শ্রমিকদের
এই সেই বিশাল সিন্দুক (নিজস্ব চিত্র)
এই সেই বিশাল সিন্দুক (নিজস্ব চিত্র)

দেওয়ালের মধ্যে গাঁথা বিশাল সিন্দুক, বাড়ি ভাঙতে গিয়ে চোখ ছানাবড়া শ্রমিকদের

  • পরিবারের অন্যতম সদস্য় উত্তম দে বলেন, বাড়ি ভাঙতে গিয়ে একটি পুরানো সিন্দুক পাওয়া গিয়েছে। শ্রমিকদের মধ্যে একটি চাঞ্চল্য় ছড়ায়।

ব্রিটিশ আমলের বাড়ি। বয়সর ভারে জীর্ণ। চুন সুরকির গাঁথনি। চওড়া দেওয়াল। সেই বাড়ির দেওয়ালেই গাঁথা ছিল সিন্দুক। পুরানো বাড়ি ভাঙতে গিয়ে উদ্ধার সিন্দুক। স্থানীয় সূত্রে খবর, দোতলা বাড়ির দেওয়ালের মধ্যে সিন্দুকটি গাঁথা ছিল। সেটি শ্রমিকরা দেখতে পান। এরপরই এলাকায় ব্য়াপক চাঞ্চল্য় ছড়ায়। বীরভূমের সিউড়ি পুরসভার অন্তর্গত ১৭ নম্বর ওয়ার্ডের স্টেশন মোড় এলাকার ঘটনা। এদিকে কী রয়েছে এই প্রাচীন সিন্দুকে তা নিয়ে শ্রমিকদের মধ্যে কৌতুহল তৈরি হয়। কিন্তু সিন্দুকটি ছিল তালাবন্ধ। এদিকে চাবিও পাওয়া যায়নি। এর জেরে এদিন সিন্দুক খুলতে পারা যায়নি। তবে পরিবারের এক সদস্য়ের দাবি, আমাদের মধ্যে কোনও চাঞ্চল্য নেই। আমরা সিন্দুকের কথা জানতাম। তবে সিন্দুকের ভেতর যা ছিল তা আগেই সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। 

পরিবারের অন্যতম সদস্য় উত্তম দে বলেন, বাড়ি ভাঙতে গিয়ে একটি পুরানো সিন্দুক পাওয়া গিয়েছে। শ্রমিকদের মধ্যে একটি চাঞ্চল্য় ছড়ায়। এটা তো ব্রিটিশ আমলে বাড়ি।প্রচুর ভারী সিন্দুকটি। এটি তুলে নিয়ে যেতে কমপক্ষে ১০-১২জন লাগবে। এই বাড়িটি চুন সুরকি দিয়ে তৈরি। আমার বাবা উত্তরাধিকার সূত্রে তাঁর বাবার কাছে থেকে বাড়িটি পেয়েছিলেন। স্থানীয় এক বাসিন্দা বলেন, সিন্দুকটি দেওয়ালের সঙ্গে গাঁথা ছিল। দোতলার উপরে সিন্দুকটি ছিল। তবে এটি খোলা যায়নি। এটির চাবি পাওয়া যায়নি। সিন্দুকের ভেতর কী আছে তা জানা যায়নি। বাড়িটিতে ২২ ইঞ্চি দেওয়াল। তার মধ্যেই গাঁথা ছিল সিন্দুকটি।

 

বন্ধ করুন