বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > হাইভোল্টেজ তারে হাত লাগতেই নিথর সিভিক ভলেন্টিয়ার, ভগবানপুরে বিক্ষোভ
বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে সিভিক ভলেন্টিয়ারের মৃত্যু। প্রতীকী ছবি।

হাইভোল্টেজ তারে হাত লাগতেই নিথর সিভিক ভলেন্টিয়ার, ভগবানপুরে বিক্ষোভ

  • এই ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব মেদিনীপুরের ভগবানপুরে। এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছে।

মর্মান্তিক মৃত্যু সিভিক ভলেন্টিয়ারের। রাতে বাড়ির ছাদে উঠেছিলেন তল্লাশি করতে। সেখানেই তাঁর হাত লেগে যায় ওভারহেড হাইভোল্টেজ বিদ্যুতের লাইনে। মুহূর্তের মধ্যে ছটফট করে শেষ হয়ে যান সিভিক ভলেন্টিয়ার। এই ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব মেদিনীপুরের ভগবানপুরে। এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছে।

বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে সিভিক ভলেন্টিয়ারের মৃত্যুতে পুলিশের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়ে উঠেছেন সাধারণ মানুষ। এমনকী পুলিশের বিরুদ্ধে গাফিলতির অভিযোগ তোলা হয়েছে। এলাকার স্থানীয় বাসিন্দারা বিক্ষোভ দেখিয়েছেন। তল্লাশিতে শুধু সিভিক ভলেন্টিয়ারকে পাঠানো হয়েছিল কেন?‌ পুলিশ কেন সঙ্গে গেল না?‌ এই সব প্রশ্ন তুলেছেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

কিভাবে ঘটল মর্মান্তিক মৃত্যু?‌ স্থানীয় সূত্রে খবর, এখানে পুলিশ অভিযান চালিয়েছিল। সেই অভিযানের সময় বাড়ির ছাদে যান সিভিক ভলেন্টিয়ার সুব্রত কর। তল্লাশি চালাতে গিয়ে তাঁর হাত লেগে যায় বিদ্যুতের তারে। সঙ্গে সঙ্গে বিদ্যুতপৃষ্ঠ হয়ে মারা যান তিনি। গেটা এলাকা বিদ্যুতহীন হয়ে পড়ে। তখনই পুলিশকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখান স্থানীয় মানুষজন। মৃত সিভিক ভলেন্টিয়ারের দেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে কাঁথি মহকুমা হাসপাতালে।

পুলিশ সূত্রে খবর, মৃত সিভিক ভলেন্টিয়ারের নাম সুব্রত কর। তাঁর বাড়ি গুড়গ্রাম গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার বুড়াবুড়ি গ্রামে। এই ঘটনা নিয়ে মুখ খুলতে চায়নি পুলিশ। তবে তদন্ত হচ্ছে। কেন রাতেই তদন্তের প্রয়োজন পড়ল?‌ সিভিক ভলেন্টিয়ারকে দিয়ে কেন এই কাজ করানো হয়েছিল?‌ এইসব প্রশ্নই করছেন এলাকার স্থানীয় মানুষজন।

বন্ধ করুন