বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > সল্টলেকের গেস্ট হাউসে ব্যক্তির ঝুলন্ত মৃতদেহ, খুন না আত্মহত্যা?‌ তদন্তে পুলিশ
পুলিশ দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে।
পুলিশ দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে।

সল্টলেকের গেস্ট হাউসে ব্যক্তির ঝুলন্ত মৃতদেহ, খুন না আত্মহত্যা?‌ তদন্তে পুলিশ

  • পুলিশ দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে। খবর পাঠানো হয়েছে তাঁর পরিবারে।

এবার সল্টলেকের গেস্ট হাউসে রহস্যজনক মৃতদেহ উদ্ধারকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ল। এখানের ১২৯ ঠিকানার গেস্ট হাউজের ৩০৪ নম্বর ঘর থেকে উদ্ধার হয় ভিনরাজ্যের এক ব্যক্তির ঝুলন্ত দেহ। বৃহস্পতিবার দেহ উদ্ধার ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়াল বিজি ব্লকে। পুলিশ দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে। খবর পাঠানো হয়েছে তাঁর পরিবারে।

বিধাননগর পুলিশ সূত্রে খবর, মৃত ব্যক্তির নাম রাজীব শর্মা (‌৫৫)‌। তিনি বেঙ্গালুরুর বাসিন্দা। তিন মাস আগে তিনি সল্টলেকের ১২৯, বিজি ব্লকের গেস্ট হাউসে পেইং গেস্ট হিসেবে থাকতে শুরু করেন। আজ সকালে গেস্ট হাউজের পরিচারক দরজা ধাক্কা দিলে কোনও সাড়াশব্দ মেলেনি। তখন জানালা খুলে পরিচারক দেখতে পান তাঁর ঝুলন্ত দেহ। একটি বেসরকারি সংস্থার কর্মী ছিলেন রাজীব শর্মা।

জানা গিয়েছে, এই তিন মাস ওয়ার্ক ফ্রম হোম করছিলেন তিনি। সম্প্রতি রাজীব মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন বলে খবর। সিলিং ফ্যানের সঙ্গে চাদর দিয়ে ঝুলন্ত অবস্থায় মেলে রাজীবের দেহ। গেস্ট হাউসের পক্ষ থেকে তাঁর এই ঘটনার খবর দেওয়া হয় বিধাননগর পূর্ব থানায়। বিধাননগর থানা রাজীবের দেহ ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে।

বেঙ্গালুরুতে পরিবারের সদস্যদের খবর দেওয়া হয়েছে। শুক্রবার তাঁর মৃতদেহের ময়নাতদন্ত করা হবে। তবে গেস্ট হাউসে এই ধরনের অস্বাভাবিক মৃত্যু নিয়ে জোর চর্চা শুরু হয়েছে। তদন্তের স্বার্থে পুলিশ গেস্ট হাউসের কর্মীদের জিজ্ঞাসাবাদ করছে। এটা আত্মহত্যা না খুন তা এখনও বোঝা যাচ্ছে না। পুলিশ ময়নাতদন্তের রিপোর্টের উপরই ভরসা করছে।

বন্ধ করুন