বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > প্রেমিকের বাড়ির সামনে ধরনা, হাত কেটে আত্মহত্যার চেষ্টা, আটক যুবতী
 যুবতী। (ছবি সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)
 যুবতী। (ছবি সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)

প্রেমিকের বাড়ির সামনে ধরনা, হাত কেটে আত্মহত্যার চেষ্টা, আটক যুবতী

ব্লেড দিয়ে নিজের হাত কেটে ফেলেন যুবতী। আহত অবস্থাতেই ধরনায় বসেছিলেন তিনি।

‌প্রেমিকের বাড়ির সামনে ধরনায় বসে পড়লেন প্রেমিকা। নিজের প্রেমিককে ফিরে পেতে আত্মহত্যার চেষ্টাও করলেন। শেষ পর্যন্ত পুলিশের হাতে আটকও  হলেন। ঘটনাটি ঘটেছে মালদহের চাঁচলে। গোটা ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকালে চাঁচলের লালগঞ্জে প্রেমিকের বাড়ির সামনে ধরনায় বসে পড়েন প্রেমিকা। পুলিশ সূত্রে খবর, প্রেমিকার বাড়িও লালগঞ্জেই। প্রেমিকার বক্তব্য, তাঁর বাবা অন্য রাজ্যে শ্রমিকের কাজ করেন। তিনি যাঁকে ভালবাসেন, তিনিও পরিযায়ী শ্রমিক। এর আগে যখনই ওই যুবক অন্য রাজ্য থেকে দেশে ফিরত, তখনই তাঁকে সঙ্গে নিয়ে এখানে–সেখানে ঘুরত। দু'বছর ধরে তাঁদের মধ্যে সম্পর্ক খুবই ভালো ছিল। একাধিকবার তাঁরা বাইরেও ঘুরতে যান ও তাঁদের মধ্যে শারীরিক সম্পর্কও হয়। কিন্তু যুবকের বাবা–মা রাজি হচ্ছেন না। অভিযোগের সুরেই প্রেমিকা জানান, যখন তিনি যুবকের বাড়ির সামনে ধরনায় বসেছিলেন, তখন তাঁকে মারধরও করেন যুবকের মা। জানা যায়, শুধু ধরনায় বসেই ক্ষান্ত হয়নি ওই যুবতী। ব্লেড দিয়ে নিজের হাত কেটে ফেলেন। আহত অবস্থাতেই ধরনায় বসেছিল সে। শেষ পর্যন্ত পুলিশ এসে মেয়েটিকে আটক করে নিয়ে যায়।

মেয়েটির মায়ের অভিযোগ, তাঁর মেয়েকে অন্যত্র বিয়ে দিতে চাইলেও সে রাজি হয়নি। উলটে তাঁর মেয়ের একটাই কথা, ওই ছেলের সঙ্গেই তাঁকে বিয়ে দিতে হবে। মেয়েটির মায়েরও দাবি, তাঁর মেয়ের সঙ্গে ওই ছেলেটির সম্পর্ক ছিল। ছেলেটি তাঁর মেয়েকে বিয়ে করারও প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল। কিন্তু পরে রাজি হয়নি। এদিকে ছেলেটির মায়ের বক্তব্য অবশ্য অন্য। তাঁর মতে, তাঁর ছেলের সঙ্গে অন্য মেয়ের সম্পর্ক আছে। সেই প্রমাণও আছে। যে কেউ এসে বিয়ে করতে চাইলেও কেন বিয়ে দেবেন। তবে এলাকার বাসিন্দার দাবি, ওই মেয়েটির সঙ্গে ওই যুবকের আগে থেকেই সম্পর্ক ছিল। তবে চাঁচলের আইসি সুকুমার ঘোষের বক্তব্য, মেয়েটির যদি কোনও অভিযোগ থাকে, তাহলে পুলিশের কাছে এসে জানাতে পারব। এভাবে কারো বাড়ির সামনে ধরনায় বসে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির কোনও মানে হয় না।

বন্ধ করুন