বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > নদীর পাড়ে কাল হল বল খেলা, ছেলের সামনেই গঙ্গায় তলিয়ে গেলেন বাবা
গঙ্গায় তলিয়ে যান হুগলির ওই ব্যক্তি। ছবিটি প্রতীকী (‌সৌজন্য ফেসবুক)‌

নদীর পাড়ে কাল হল বল খেলা, ছেলের সামনেই গঙ্গায় তলিয়ে গেলেন বাবা

  • স্থানীয় সূত্রে খবর, বলটি ভেসে যাচ্ছিল। বেশ কিছুটা সাঁতরে তিনি সেটির নাগাল পেয়ে যান। কিন্তু স্রোতের টানে তিনি ক্রমেই ভেসে যেতে থাকেন।

ছেলেকে নিয়ে গঙ্গার পাড়ে খেলতে গিয়েছিলেন বাবা মেহেদি হাসান। ভদ্রেশ্বরের ভিক্টোরিয়া রোড এলাকায় থাকতেন তিনি। বৃহস্পতিবার তেলেনিপাড়ার গঙ্গার ধারে ছেলের সঙ্গে বল খেলছিলেন তিনি। হঠাৎ করে বলটি গঙ্গার জলে পড়ে যায়।এদিকে বল গঙ্গায় পড়ে গিয়েছে দেখতে পেয়েই বল কুড়োতে একেবারে নদীতে ঝাঁপ দেন ৪২ বছর বয়সী বাবা। স্থানীয় সূত্রে খবর, বলটি ভেসে যাচ্ছিল। বেশ কিছুটা সাঁতরে তিনি সেটির নাগাল পেয়ে যান। কিন্তু স্রোতের টানে তিনি ক্রমেই ভেসে যেতে থাকেন। কিছুতেই পাড়ে ফিরতে পারছিলেন না। এরপর স্থানীয় বাসিন্দারাও মেহেদির খোঁজ শুরু করেন। তাঁকে উদ্ধারেরও চেষ্টা করেন। কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি। গঙ্গার ঘুর্ণি স্রোতে তলিয়ে যান বাবা। একেবারে ছেলের সামনেই ডুবে যেতে থাকেন অসহায় বাবা। 

এদিকে ঘটনার কথা জানাজানি হতেই এলাকায় শোরগোল পড়ে যায়। ভদ্রেশ্বর থানা থেকে পুলিশ এসে তাকে উদ্ধারের চেষ্টা করেন। কিন্তু তারাও উদ্ধার করতে পারেননি। এরপর দুর্যোগ মোকাবিলা দফতরে খবর দেওয়া হয়। বৃহস্পতিবার দুপুরের পর থেকেই উৎকণ্ঠার প্রহর গোণা শুরু করেন পরিবার পরিজনরা। রাতে ফের তল্লাশি চালানো হয় গঙ্গায়। শুক্রবার সকালেও গঙ্গায় তল্লাশি চলে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত মেহেদি হাসানের খোঁজ মেলেনি। বাসিন্দারা বলেন, আচমকা কীভাবে এই কাণ্ড হয়ে গেল বোঝা যাচ্ছে না। 

 

বন্ধ করুন