বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > বাঁকুড়ায় ঘুমন্ত অবস্থায় তুলে নিয়ে গেল নাবালিকাকে, চলল সারারাত ধর্ষণ
নাবালিকাকে রাতের অন্ধকারে তুলে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ

বাঁকুড়ায় ঘুমন্ত অবস্থায় তুলে নিয়ে গেল নাবালিকাকে, চলল সারারাত ধর্ষণ

  • রাতের অন্ধকারে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল নাবালিকাকে। আজ ভোরে রক্তাক্ত অবস্থায় বাড়ি ফেরে ওই নির্যাতিতা। ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। নাবালিকার মেডিকেল পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হয়েছে। থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে পিরবার। পুলিশ আধিকারিকরা গ্রামে গিয়েছিলেন।

আবার রাজ্যে ধর্ষণের ঘটনা ঘটল। রাতে বাড়ি থেকে ঘুমন্ত অবস্থায় তুলে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ। নাবালিকাকে রাতের অন্ধকারে এভাবে তুলে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করার ঘটনায় শিউরে উঠেছেন গ্রামবাসীরা! এই ঘটনায় ব্যাপক আলোড়ন পড়ে গিয়েছে বাঁকুড়ায়। নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন নাবালিকার পরিবারের সদস্যরা।

ঠিক কী ঘটেছে বাঁকুড়ায়?‌ স্থানীয় সূত্রে খবর, বাড়িতে তখন নাবালিকা ঘুমাচ্ছিল। সোমবার মাঝরাতে কেউ বা কারা ওই নাবালিকাকে মুখ চেপে তুলে নিয়ে যায়। তারপর সারারাত তাকে ধর্ষণ করা হয়। আজ, মঙ্গলবার সকালে রক্তাক্ত অবস্থায় বাড়ি ফেরে নির্যাতিতা। অভিযুক্তরা এখনও অধরা রয়েছে। ঘটনাকে কেন্দ্র তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে বাঁকুড়ার সোনামুখী এলাকায়।

নাবালিকা সম্পর্কে কী তথ্য মিলছে?‌ পরিবার সূত্রে খবর, নাবালিকার বাবা–মা দু’‌জনেই প্রয়াত। পিসির সঙ্গে গ্রামের বাড়িতে থাকে সে। পরিবারের সদস্যদের অভিযোগ, সোমবার রাতে ঘুমাচ্ছিল নাবালিকা। বাড়ি থেকে তাকে তুলে নিয়ে যায় অজ্ঞাতপরিচয়ের দুষ্কৃতীরা। রাতে বিছানায় দেখতে না পেয়ে খোঁজাখুঁজি শুরু হয়। খোঁজাখুঁজি শুরু করেন গ্রামবাসীরা। কিন্তু তখন নাবালিকার সন্ধান মেলেনি।

পুলিশ কী তথ্য পেয়েছে?‌ পুলিশ সূত্রে খবর, রাতের অন্ধকারে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল নাবালিকাকে। আজ ভোরে রক্তাক্ত অবস্থায় বাড়ি ফেরে ওই নির্যাতিতা। ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। নাবালিকার মেডিকেল পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হয়েছে। থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে পিরবার। পুলিশ আধিকারিকরা গ্রামে গিয়েছিলেন। অভিযুক্ত দ্রুত ধরা পড়বে। নির্যাতিতার বয়ান রেকর্ড করা হয়েছে।

বন্ধ করুন