HT বাংলা থেকে সেরা খবর পড়ার জন্য ‘অনুমতি’ বিকল্প বেছে নিন
বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Dhupguri: অমানবিক! ট্রেনে পা কাটা গেল যুবকের, হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পরিবর্তে ছবি তুলল জনতা
ট্রেনে কাটা পড়ে মৃত্যু যুবকের। প্রতীকী ছবি।

Dhupguri: অমানবিক! ট্রেনে পা কাটা গেল যুবকের, হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পরিবর্তে ছবি তুলল জনতা

  • আজ সকালে ঘটনাটি ঘটেছে আলতাগ্রাম এবং ধুপগুড়ি স্টেশনের মাঝে। রেল এবং স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মৃত যুবকের নাম খতিবুল আলম। তিনি অসমের বাসিন্দা। ট্রেনে করে যাওয়ার সময় কোনওভাবে তিনি ছিটকে লাইনে পড়ে যান।

অমানবিক ঘটনা! ট্রেন থেকে ছিটকে রেললাইনে দীর্ঘক্ষণ ধরে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকলেন যুবক। অথচ সাহায্যের জন্য কেউই এগিয়ে এলেন না। কেউ ওই ব্যক্তির ছবি তুলতে আবার কেউ ভিডিয়ো করতে ব্যস্ত থাকলেন। অবশেষে খবর পেয়ে রেলের কর্মীরা সেইখানে পৌঁছে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। কিন্তু বাঁচানো সম্ভব হয়নি। কার্যত বিনা চিকিৎসায় মৃত্যু হল ওই যাত্রীর। এমনই এক অমানবিক ঘটনার সাক্ষী থাকল জলপাইগুড়ির ধুপগুড়ি।

আজ সকালে ঘটনাটি ঘটেছে আলতাগ্রাম এবং ধুপগুড়ি স্টেশনের মাঝে। রেল এবং স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মৃত যুবকের নাম খতিবুল আলম। তিনি অসমের বাসিন্দা। ট্রেনে করে যাওয়ার সময় কোনওভাবে তিনি ছিটকে লাইনে পড়ে যান। ডাউন লোকমান্য তিলক এক্সপ্রেসে করে তিনি গুয়াহাটি থেকে মুম্বইয়ের দিকে যাচ্ছিলেন। রেল লাইনে পড়ে যাওয়ার পর যুবকের দুটি পা ট্রেনে কাটা পড়ে। তখনও জীবিত ছিলেন ওই যুবক। স্থানীয়রা তাকে পড়ে থাকতে দেখলেও উদ্ধার করেননি। প্রায় এক ঘণ্টা ধরে রেললাইনে পড়ে থাকেন ওই যুবক। পরে রেলের কর্মীরা এসে তাকে উদ্ধার করে ধুপগুড়ি গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে তাকে চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন।

কীভাবে ওই যুবক ট্রেন থেকে পড়ে গেল তা খতিয়ে দেখছে জিআরপি। প্রাথমিকভাবে জিআরপির অনুমান কোনওভাবে ট্রেনের দরজা থেকে ছিটকে ওই যুবক পড়ে যায়। তাকে ফেলে দেওয়া হয়েছে কিনা সে বিষয়টিও খতিয়ে দেখছে পুলিশ। ইতিমধ্যেই হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে পুলিশ ওই যুবকের বয়ান রেকর্ড করেছে।