বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Blood: এক গ্রুপের রোগী পেলেন অন্য গ্রুপের রক্ত, ভয়াবহ কাণ্ড রামপুরহাট মেডিক্যালে
এক গ্রুপের রক্ত দেওয়া হল অন্য রোগীকে। প্রতীকী ছবি সৌজন্যে পিটিআই। (PTI)

Blood: এক গ্রুপের রোগী পেলেন অন্য গ্রুপের রক্ত, ভয়াবহ কাণ্ড রামপুরহাট মেডিক্যালে

  • অন্য গ্রুপের রক্ত শরীরে যেতেই কাঁপুনি শুরু হয়ে যায়। রোগীর বাড়ির লোকজনও এনিয়ে চিৎকার শুরু করেন। এরপরই দ্রুত তাঁদের সিসিইউতে নিয়ে যাওয়া হয়।

ভয়াবহ অভিযোগ।সরকারি হাসপাতালে মারাত্মক ভুলের অভিযোগ। বীরভূমের রামপুরহাট মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে এক গ্রুপের রোগীকে অন্য় গ্রুপের রক্ত দেওয়ার অভিযোগ। এদিকে ঘটনাটি জানাজানি হতেই তুমুল চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে।

সূত্রের খবর, ওই রোগিনী রামপুরহাটের মাঝখণ্ডের বাসিন্দা। নাম কাজলরেখা চক্রবর্তী। তাঁর রক্তের গ্রুপ 0। এদিকে গত বৃহস্পতিবার রামপুরহাট মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল তাঁকে। অন্যদিকে শুক্রবার ওই হাসপাতালের সার্জিকাল ওয়ার্ডে ভর্তি হয়েছিলেন আজমা বিবি। এদিকে কাজলরেখা চক্রবর্তীর পরিবারের দাবি, তাঁদের রোগীর রক্তের গ্রুপ 0, অথচ তাকে বি পজিটিভ গ্রুপের রক্ত দেওয়া হয়েছে। 

অন্যদিকে আজমা বিবির পরিবারের দাবি, তাঁর রক্তের গ্রুপ বি পজিটিভ। অথচ তাঁকে দেওয়া হয়েছে ও পজিটিভ। কিন্তু কীভাবে এত বড় ভুল হয়ে গেল তা নিয়ে নানা প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। তবে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বিষয়টি মেনে নিয়েছে। তাদের দাবি, রোগীরা যাতে সুস্থ থাকে সেটা দেখা হচ্ছে।

এদিকে কাজলরেখা চক্রবর্তীর ছেলের নীতীশ চক্রবর্তীর দাবি, গিয়ে দেখলাম মাকে বি পজিটিভ রক্ত দেওয়া হচ্ছে। কিন্তু মায়ের গ্রুপ ও পজিটিভ। দেখেই চিৎকার করে উঠি। এরপর নার্সরা আসেন।বলার পরে রক্ত খুলে নেওয়া হয়। মায়ের শরীর কাঁপতে থাকে। মা আরও অসুস্থ হয়ে পড়ে। যারা এই ঘটনায় জড়িত তাদের যেন শাস্তি হয়। মাকে দেওয়া প্যাকেটের উপর লেখা ছিল আজমা বিবি। 

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের দাবি, অসাবধানতাবশত হয়ে গিয়েছে। তবে বিষয়টি জানার পরেই তাদের সিসিইউতে পাঠানো হয়েছিল। লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত হবে। তবে দুজনেই আপাতত সুস্থ আছেন। 

 

 

 

বন্ধ করুন