বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > নিজের প্রেমিকা অন্য পুরুষের বাহুডোরে, দৃশ্য সহ্য করতে না পেরে আত্মঘাতী ছাত্র
আত্মহত্যা করল একাদশ শ্রেণির ছাত্র।

নিজের প্রেমিকা অন্য পুরুষের বাহুডোরে, দৃশ্য সহ্য করতে না পেরে আত্মঘাতী ছাত্র

  • এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসার পরই প্রেমিকার বাড়ি এবং মামারবাড়িতে চড়াও হন স্থানীয় বাসিন্দারা।

ছবিটা মেনে নিতে পারেনি স্কুল ছাত্রটি। নিজের প্রেমিকা অন্য পুরুষের বাহুডোরে চুম্বনে আবিষ্ট হচ্ছে। আর এই অন্তরঙ্গ ছবি দেখে আত্মহত্যা করল একাদশ শ্রেণির ছাত্র। এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে হুগলির চুঁচুড়া কারবালা মোড়ে। এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসার পরই প্রেমিকার বাড়ি এবং মামারবাড়িতে চড়াও হন স্থানীয় বাসিন্দারা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে চুঁচুড়া থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছয়।

পুলিশ সূত্রে খবর, মৃত ছাত্রের নাম জিৎ হালদার (‌১৬)‌। বাড়ি হুগলির চুঁচুড়া নবাববাগান এলাকায়। মেধাবি ছাত্রটি জিৎ হুগলি কলেজিয়েট গভর্ণমেন্ট স্কুল থেকে মাধ্যমিক পাশ করে জ্যোতিষ চন্দ্র বিদ্যালয়ে একাদশ শ্রেণিতে পড়ছিল। তার সঙ্গে এলাকারই ষোড়শী ছাত্রীর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। কিন্তু কিছুদিন যেতেই প্রেমিকা অন্য যুবকের বাহুডোরে চুম্বনে আবিষ্ট হচ্ছে এমন অন্তরঙ্গ ছবি জিতের কাছে পৌঁছয়। এটা দেখে সে মেনে নিতে পারেনি। তাই নিজের বাড়িতেই আত্মঘাতী হয়।

স্থানীয় সূত্রে খবর, এই জিতের সঙ্গে মেয়েটিকে নানা জায়গায় দেখা গিয়েছিল। মাঝে কয়েকদিন বাড়ি থেকে বাইরে বেরোচ্ছিল না জিৎ। পরিবারের সদস্যরা জিতের ঝুলন্ত দেহ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেন। বিষয়টি জানাজানি হতেই ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে জনতা। কিশোরীকে না পেয়ে তার মামার বাড়িতে চড়াও হয়। দু’পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি শুরু হয়। চুঁচুড়া থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি সামাল দেয়।

যদিও কিশোরীর পরিবারের অভিযোগ, ওই ছাত্রের পরিবারের সদস্যরা বাড়িতে চড়াও হয়ে তাঁদের মারধর করেছে। বাড়িতে ভাঙচুর চালিয়েছে। এমনকী ছাত্রের পরিবারের অভিযোগ সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। এই ঘটনায় ছাত্রের পরিবার ফাঁসিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করছে। স্থানীয়দের পাল্টা দাবি, ছাত্রের মৃত্যুর বিচার চাই। ওই কিশোরীকে গ্রেফতার করতে হবে।

বন্ধ করুন