বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > একেবারে গল্পের মতো, ২২ বছর ধরে পথ চেয়ে বসেছিলেন মা, অবশেষে ফিরলেন ছেলে
ফরাক্কার বাড়িতে ফিরলেন নিখোঁজ ছেলে
ফরাক্কার বাড়িতে ফিরলেন নিখোঁজ ছেলে

একেবারে গল্পের মতো, ২২ বছর ধরে পথ চেয়ে বসেছিলেন মা, অবশেষে ফিরলেন ছেলে

  • সেই সময় ছেলের অসুস্থতা চরমে ওঠে। অগত্যা ছেলে প্রদীপ হালদারকে জঙ্গিপুরে ডাক্তার দেখাতে নিয়ে গিয়েছিলেন মা ও জামাইবাবু।

রোজ পথ চেয়ে থাকা। একটা একটা করে দিন পেরিয়ে গিয়েছে। পেরিয়ে গিয়েছে ২২টা বছর। অবশেষে মুর্শিদাবাদের ফরাক্কার বাড়িতে ফিরলেন নিখোঁজ ছেলে প্রদীপ হালদার। সেই পরিবার এখন ছেলে ফিরে আসার আনন্দে মাতোয়ারা। ছেলে ফিরে আসার কথা ভেবে রোজ দিন গুনতেন পরিবার। একটা সময় হাল ছেড়ে দিয়েছিলেন। রোজ দরজা খুললেই মনে হত এই হয়তো ছেলে মা বলে ডেকে উঠবে। সেই ছেলেই ফিরলেন অবশেষে। মুম্বইয়ের একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার সহযোগিতায় প্রদীপ হালদার ২২ বছর পরে ফিরলেন নিজের বাড়িতে। 

পরিবার সূত্রে খবর, ছোট থেকেই প্রদীপের মানসিক বিকাশ সেভাবে হচ্ছিল না। ১৯৯৮ সালে মুর্শিদাবাদে বন্যা হয়েছিল। সেবার তার অসুস্থতা চরমে ওঠে। জামাইকে সঙ্গে নিয়ে জঙ্গিপুর ছেলের জন্য ডাক্তার দেখাতে গিয়েছিলেন মা। তখনই নিখোঁজ হয়ে যায় প্রদীপ। এরপর বহু জায়গায় খুঁজেও প্রদীপের খোঁজ মেলেনি।।

কীভাবে খোঁজ মিলল প্রদীপের? পরিবার সূত্রে খবর, মুম্বইয়ের একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা উদ্ধার করেছিল প্রদীপকে। তাদের কাছেই বড় হয় প্রদীপ। যখন হারিয়ে গিয়েছিল তখন প্রদীপের বয়স ছিল ১৪ বছর। এরপর ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে ওঠে সে। বাড়ির ঠিকানাও বলতে পারে। তারাই বাড়ি ফিরিয়ে দেয় প্রদীপকে। তবে প্রদীপ এখন অনেকটাই সুস্থ। তবে এতবছর পর চারপাশটা বদলে গিয়েছে অনেকটাই। ছেলের চিন্তায় অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন মা আদুরি হালদার। তবে ছেলেকে ফিরে পেয়ে ফের নতুন করে বাঁচার স্বপ্ন দেখছে পরিবার। 

বন্ধ করুন