বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Nadia: তালা ভেঙে দুঃসাহসিক চুরি শান্তিপুর হিন্দু উচ্চ বিদ্যালয়ে, উধাও গুরুত্বপূর্ণ নথি
চুরির ঘটনার পর স্কুলে পুলিশ। নিজস্ব ছবি।

Nadia: তালা ভেঙে দুঃসাহসিক চুরি শান্তিপুর হিন্দু উচ্চ বিদ্যালয়ে, উধাও গুরুত্বপূর্ণ নথি

  • আজ সকালে স্কুলের ভেতরে ঢুকে তারা দেখেন দরজার তালা ভাঙা অবস্থায় রয়েছে। ঘরের ভিতরে ঢুকতেই দেখেন সমস্ত আলমারি লন্ডভন্ড হয়ে রয়েছে। সেখান থেকেই প্রয়োজনীয় কাগজপত্র-সহ বেশ কিছু অর্থ দুষ্কৃতীরা চুরি করেছে বলে অভিযোগ। এছাড়াও স্কুলের ঘরের ভেতরে থাকা একাধিক বাসনপত্র চুরি করে নিয়েছে দুষ্কৃতীরা।

স্কুলের তালা ভেঙে একাধিক গুরুত্বপূর্ণ নথি, জিনিসপত্র-সহ বেশ কিছু অর্থ চুরি করে নিয়ে পালালো দুষ্কৃতীরা। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে নদিয়ার শান্তিপুর হিন্দু উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাথমিক বিভাগে। আজ সকালে স্কুলের ভেতরে ঢুকতেই চুরির বিষয়টি নজরে আসে স্কুলের শিক্ষকদের। ঘটনায় শান্তিপুর থানায় চুরির অভিযোগ দায়ের করেছে স্কুল কর্তৃপক্ষ।

স্কুলের শিক্ষকদের অভিযোগ, আজ সকালে স্কুলের ভেতরে ঢুকে তারা দেখেন দরজার তালা ভাঙা অবস্থায় রয়েছে। ঢুকে তারা দেখেন দরজার তালা ভাঙা অবস্থায় রয়েছে। ঘরের ভিতরে ঢুকতেই দেখেন সমস্ত আলমারি লণ্ডভণ্ড হয়ে রয়েছে। সেখান থেকেই প্রয়োজনীয় কাগজপত্র-সহ বেশ কিছু অর্থ দুষ্কৃতীরা চুরি করেছে বলে অভিযোগ। এছাড়াও স্কুলের ঘরের ভেতরে থাকা একাধিক বাসনপত্র চুরি করে নিয়েছে দুষ্কৃতীরা। সম্পূর্ণ বিষয়টি নজরে আসতেই স্কুল কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে শান্তিপুর থানায় ফোন করে চুরির ঘটনাটি জানানো হয়। ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়ে পুরো ঘটনার তদন্ত শুরু করে।

স্কুলের শিক্ষককাদের দাবি, স্কুলের পাঁচিল টপকে ভেতরে ঢুকছিল দুষ্কৃতীরা এরপর স্কুলের দরজার তালা ভেঙে সমস্ত কিছু চুরি করে নেয়। আবার গতকাল দুষ্কৃতীরা দিনের বেলায় স্কুলে ঢুকতে পারে বলেও অনুমান শিক্ষকদের একাংশের। এক শিক্ষিকার বক্তব্য, গতকাল মর্নিং ক্লাস করে স্কুল ছুটি দেওয়া হয়েছিল। ফলে সারাদিন স্কুল ছুটি ছিল। সেই সময় তারা হয়ত চুরি করেছে। রাতের অন্ধকার নামতেই তারা চম্পট দিয়েছে। স্বভাবতই উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাথমিক বিভাগে এইভাবে চুরির ঘটনায় অবাক স্কুল কর্তৃপক্ষ। প্রাথমিকভাবে পুলিশের অনুমান, স্কুলের পাঁচিলের বাইরে থাকা কলাগাছ বেয়ে দুষ্কৃতীরা পালিয়েছে। যদিও দুঃসাহসিক চুরির ঘটনার সঙ্গে কে বা কারা জড়িত তার তদন্ত শুরু করেছে শান্তিপুর থানার পুলিশ।

বন্ধ করুন