বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > শেষ ৫৬ বছরের অপেক্ষা, বন্ধুত্বের দিনে চালু হল হলদিবাড়ি-চিলাহাটি ট্রেন
শেষ ৫৬ বছরের অপেক্ষা, বন্ধুত্বের দিনে চালু হল হলদিবাড়ি-চিলাহাটি ট্রেন। (ছবি সৌজন্য এএনআই)
শেষ ৫৬ বছরের অপেক্ষা, বন্ধুত্বের দিনে চালু হল হলদিবাড়ি-চিলাহাটি ট্রেন। (ছবি সৌজন্য এএনআই)

শেষ ৫৬ বছরের অপেক্ষা, বন্ধুত্বের দিনে চালু হল হলদিবাড়ি-চিলাহাটি ট্রেন

  • উত্তর পূর্ব ভারতের প্রাচীন এই রেলপথই হল এই রেল রুটটি।

‌দীর্ঘ ৫৬ বছর পর হলদিবাড়ি থেকে পণ্যবাহী ট্রেন রওনা দিল বাংলাদেশের উদ্দেশে। ৩০টি ওয়াগান নিয়ে পণ্যবাহী ওই ট্রেনটি গেল বাংলাদেশের উদ্দেশে। গত ১৭ ডিসেম্বর আন্তর্জাতিক এই রেল রুটের উদ্বোধন করেছিলেন দুই দেশের প্রধানমন্ত্রী। এবার সেই রুট দিয়ে পণ্যবাহী ট্রেন যাতায়াত শুরু করল। রেলের এই নতুন সূচনাকে ঘিরে উৎসাহী দুই দেশের নাগরিকরাই।

রেল দফতর সূত্রে খবর, রবিবার সকালে ডামডিম স্টেশন থেকে ৫৯টি ওয়াগানে পাথর বোঝাই করে একটি ট্রেন নিউ জলপাইগুড়ি, জলপাইগুড়ি হয়ে হলদিবাড়ি স্টেশনে পৌঁছোয়। এরপর হলদিবাড়ি স্টেশন থেকে ৩০টি ওয়াগান ও একটি ব্রেক ভ্যান নিয়ে একটি ইঞ্জিন চিলাহাটি স্টেশনের দিকে রওনা দিয়েছে। দীর্ঘ বেশ কয়েক বছর পর দুই দেশের মধ্যে পণ্য নিয়ে এই যাতায়াত অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ ঘটনা বলে মনে করা হচ্ছে। ইতিমধ্যে এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে হলদিবাড়ি স্টেশনকে নতুনভাবে সাজিয়ে তোলা হয়েছে। স্টেশন বিল্ডিংয়ের অফিস ঘর সাজিয়ে তোলা হয়েছে। প্রতিটি দফতরে বসানো হয়েছে কম্পিউটার।

উল্লেখ্য, উত্তর-পূর্ব ভারতের প্রাচীন এই রেলপথই হল এই রেল রুটটি। ১৯৬৫ সালে ভারত ও পাকিস্তানের সঙ্গে যুদ্ধের সময়ে ওই রেলপথটি বন্ধ হয়ে যায়। এরপর ছিটমহল বিনিময় চুক্তির পরে ভারত ও বাংলাদেশ, এই দুই দেশের সরকার নতুন করে ওই রেলপথ চালুর পরিকল্পনা নেয়। হলদিবাড়িতে রেলস্টেশন গড়ে ওঠে। আন্তর্জাতিক সীমান্ত পাতা হয় ৩.‌৩৪ কিলোমিটার পর্যন্ত রেল লাইন। অন্যদিকে বাংলাদেশের চিলাহাটি স্টেশনকে নতুন করে গড়ে তোলা হয়। চিলাহাটি থেকে ভারতের সীমানা পর্যন্ত ৬,৭২৪ কিলোমিটার নতুন রেলপথ তৈরি করা হয়।

বন্ধ করুন