বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ব্যক্তিগত শত্রুতার কারণে মণীশ শুক্লকে খুন কিনা, সেটাও খতিয়ে দেখছে পুলিশ
মণীশের মায়ের সঙ্গে কথা বলছেন কৈলাশ বিজয়বর্গী। 
মণীশের মায়ের সঙ্গে কথা বলছেন কৈলাশ বিজয়বর্গী। 

ব্যক্তিগত শত্রুতার কারণে মণীশ শুক্লকে খুন কিনা, সেটাও খতিয়ে দেখছে পুলিশ

  • তদন্ত চলছে, এখনই সিদ্ধান্তে উপনীত না হওয়ার আর্জি জানিয়েছে পুলিশ। 

বিজেপি নেতা তথা ব্যারাকপুরের সাংসদ অর্জুন সিংয়ের জান হাত মণীশ শুক্লর মৃত্যুতে আজ ব্যারাকপুর জুড়ে চলছে ১২ ঘন্টার বনধ। সেখানে উপস্থিত হয়ে মণীশ শুক্লর বাড়িতে যান কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক কৈলাশ বিজয়বর্গীয়, সর্বভারতীয় সহ–সভাপতি মুকুল রায় এবং সর্বভারতীয় সম্পাদক অরবিন্দ মেনন। স্বভাবতই এলাকা এখন সরগরম। বিভিন্ন রাস্তায় চলছে অবরোধ–বিক্ষোভ। অন্যদিকে এই খুনের নেপথ্যে কারণ আগে থেকে অনুমান না করে নিতে আর্জি জানিয়েছে পুলিশ। তারা জানিয়েছে ব্যক্তিগত কারণের সম্ভাবনাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে কারণ মৃত ব্যক্তির বিরুদ্ধে বেশ কিছু অভিযোগ ছিল। 

এই পরিস্থিতিতে পশ্চিমবঙ্গ পুলিশের পক্ষ থেকে বার্তা দেওয়া হয়েছে  উপযুক্ত তদন্ত হওয়ার আগে কোনও সিদ্ধান্তে ঝাঁপিয়ে পড়া উচিত নয়। সোশ্যাল মিডিয়ায় দায়িত্বজ্ঞানহীন মন্তব্য বিরত থাকা উচিত। না হলে তদন্তে প্রভাব পড়তে পারে। এই অনুরোধের পরেও সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে এলাকার তপ্ত ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে। বিজেপি’‌র পক্ষ থেকে একাধিক ভিডিও হোয়াটসঅ্যাপ, ফেসবুকে ঘোরাঘুরি করছে।

এদিন দত্তপুকুরের ৩৫ নম্বর জাতীয় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখানো হয় আমডাঙা মণ্ডলের পক্ষ থেকে। সেখানে টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ দেখানো হয়। গোটা রাস্তা অবরোধ করা হয়। রাস্তার মোড়ে মণীশের ছবি রেখে চলে জোর স্লোগান। এমনকী বিটি রোড জুড়েও চলছে একাধিক অবরোধ। তার মধ্যেই ব্যারাকপুরে ঘুরে বেড়াচ্ছেন সাংসদ অর্জুন সিং। তিনি বলেন, ‘‌আমাদের ১২০ জন নেতা–কর্মী এখনও পর্যন্ত খুন হয়েছেন। বাংলার মুখ্যমন্ত্রী যে খেলাটা শুরু করেছেন তা রাজনৈতিকভাবেই মোকাবিলা করা হবে। ইতিমধ্যেই দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে বিষয়টি জানিয়েছি। এটা পুলিশই খুন করেছে। সুতরাং পুলিশ দিয়ে তদন্ত করে লাভ নেই।’‌

পুলিশ জানিয়েছে, গতকাল সন্ধ্যেবেলা ব্যারাকপুরের টিটাগড় অঞ্চলে এক ব্যক্তিকে গুলি করে খুন করা হয়েছে। পুলিশ এই ঘটনার তদন্ত করছে। সমস্ত দিক দিয়ে তদন্ত করা হচ্ছে। এমনকী ব্যক্তিগত শত্রুতার জন্য এই খুন কিনা তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। কারণ খুন হওয়া ব্যক্তির বিরুদ্ধেও কিছু মামলা রয়েছে।

মণীশ শুক্লর খুনের ঘটনায় দিল্লি থেকে কড়া প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন দলের মুখপাত্র ডঃ সম্বিত পাত্র। তিনি বলেন, ‘‌আমি মমতা ব্যানার্জিকে প্রশ্ন করতে চাই বাংলায় কী গণতন্ত্র আছে?‌ তিনি এবং তাঁর প্রতিনিধিরা অন্যান্য রাজ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছেন এবং অবিচার হচ্ছে বলে অভিযোগ তুলছেন। তাই আমি জিজ্ঞাসা করতে চাই মণীশ শুক্লর বাড়িতে তিনি কখন যাবেন?‌’‌

বন্ধ করুন