বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Alipurduar: চিকিৎসককে বেধড়ক মার, ভাঙল পাঁজরের হাড়, কাঠগড়ায় আলিপুরদুয়ারের বিডিও
আলিপুরদুয়ারে আক্রান্ত চিকিৎসক। প্রতীকী ছবি। (HT_PRINT)

Alipurduar: চিকিৎসককে বেধড়ক মার, ভাঙল পাঁজরের হাড়, কাঠগড়ায় আলিপুরদুয়ারের বিডিও

  • ঘটনাটি রবিবার রাত সাড়ে দশটা নাগাদ আলিপুরদুয়ারে ঢোকার পথে দমনপুর চেকপোস্টে ঘটেছে। ওই চিকিৎসক রোগী দেখে কালচিনি থেকে বাড়ি ফিরছিলেন। তখনই তিনি আক্রান্ত হন। আক্রান্ত চিকিৎসকের নাম সুবীর দাস। তিনি আলিপুরদুয়ার জেলা হাসপাতালের ইএনটি বিশেষজ্ঞ।

চিকিৎসকের গাড়ি আটকে কটুক্তি এবং মারধরের অভিযোগ উঠল এমন অভিযোগ উঠেছে বিডিওর বিরুদ্ধে। চিকিৎসককে এমন ভাবে মারধর করা হয়েছে যে তাঁর পাঁজরের দুটি হাড় ভেঙে গিয়েছে বলে অভিযোগ। ঘটনাটি আলিপুরদুয়ারের। এমন অভিযোগ প্রকাশ্যে আসতেই শোরগোল পড়ে গিয়েছে। ইতিমধ্যেই বিডিওর বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের হয়েছে। এই ঘটনার চিকিৎসকদের সংগঠন আইএমএ’র পক্ষ থেকে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানানো হয়েছে

যদিও এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন বিডিও।

কী ঘটেছিল?

ঘটনাটি রবিবার রাত সাড়ে দশটা নাগাদ আলিপুরদুয়ারে ঢোকার পথে দমনপুর চেকপোস্টে ঘটেছে। ওই চিকিৎসক রোগী দেখে কালচিনি থেকে বাড়ি ফিরছিলেন। তখনই তিনি আক্রান্ত হন। আক্রান্ত চিকিৎসকের নাম সুবীর দাস। তিনি আলিপুরদুয়ার জেলা হাসপাতালের ইএনটি বিশেষজ্ঞ। অভিযোগ, তিনি নিজেই গাড়ি চালিয়ে আসছিলেন। সেই সময় গা আরও তিন চারজন ছিলেন। চেকপোস্টে একজন পুলিশের পোশাক পরা এবং একজন সাদা পোশাক পরা ব্যক্তি তাদের গাড়ি দাঁড় করান। তারপর গাড়ির কাগজপত্র দেখতে চান। পাল্টা ওই চিকিৎসক তাদের পরিচয় জানতে চাইলেই ঘটে বিপত্তি। তাদের মধ্যে একজন নিজেকে আলিপুরদুয়ারের বিডিও দাবি করে মারধর করে বলে অভিযোগ। এরপর সেখান থেকে অভিযুক্তরা চলে যায়। পরে পুলিশ এসে তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়। এখনও চিকিৎসক সিসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছেন।

যদিও ঘটনার সময় চেকপোস্টে অভিযুক্ত বিডিও প্রশান্ত বর্মন ছিলেন বলেই স্বীকার করেছেন। তিনি বলেন, চিকিৎসক এবং তার সঙ্গীদের অস্বাভাবিক অবস্থা দেখতে পেয়ে গাড়ি দাঁড় করানো হয়েছিল। তারপরে তাদের পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়। কোনওভাবেই তাদের মারধর করা হয়নি। পুরো বিষয়টি খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

বন্ধ করুন