বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > TMC নেতার ভেড়িতে বিষ দিয়ে লক্ষাধিক টাকার মাছ মেরে ফেলার অভিযোগ ISF-এর বিরুদ্ধে
ঘটনার পর মাছের ভেড়ি পরিদর্শন করছে পুলিশ। নিজস্ব ছবি। 
ঘটনার পর মাছের ভেড়ি পরিদর্শন করছে পুলিশ। নিজস্ব ছবি। 

TMC নেতার ভেড়িতে বিষ দিয়ে লক্ষাধিক টাকার মাছ মেরে ফেলার অভিযোগ ISF-এর বিরুদ্ধে

  • আজ সকালে ওই ভেড়িতে প্রথমে কয়েকটি মাছ মৃত অবস্থায় ভেসে থাকতে দেখা যায়। পরে ভেড়ির সমস্ত মাছ মৃত অবস্থায় ভেসে ওঠে। তৃণমূল নেতার দাবি, ভেড়িতে যা মাছ ছিল তার মূল্য প্রায় ছয় থেকে সাত লক্ষ টাকা।

তৃণমূল নেতার মাছের ভেড়িতে কীটনাশক দিয়ে লক্ষ লক্ষ টাকার মাছ মেরে ফেলার অভিযোগ উঠল। অভিযোগের তীর আইএসএফের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি দক্ষিণ ২৪ পরগনার ভাঙড়ের কৃষ্ণমাটি এলাকার। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। ইতিমধ্যেই থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন ওই ভেড়ির মালিক তথা তৃণমূল নেতা কালাম মোল্লা।

অভিযোগ, আজ সকালে ওই ভেড়িতে প্রথমে কয়েকটি মাছ মৃত অবস্থায় ভেসে থাকতে দেখা যায়। পরে ভেড়ির সমস্ত মাছ মৃত অবস্থায় ভেসে ওঠে। তৃণমূল নেতার দাবি, ভেড়িতে যা মাছ ছিল তার মূল্য প্রায় ছয় থেকে সাত লক্ষ টাকা। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বাগজোলা খালের পাশে ১৫ বিঘা মাছের ভেড়ি আছে। সেইখানেই আজ মাছ মরে ভেসে উঠেছে। এ প্রসঙ্গে তৃণমূল নেতার এক আত্মীয় বলেন, ‘আমাদের অপরাধ হল আমরা তৃণমূল করি। ভাইজান আসার পর থেকে আমাদের উপর অত্যাচার শুরু হয়েছে। তারা নানাভাবে আমাদের উপর অত্যাচার চালাচ্ছে। আমার যে দুই ভাইপো ভেড়ি পাহারা দিয়ে থাকে তারা সেখানে ছিল না, দীঘায় বেড়াতে গিয়েছে। তাদের না থাকার সুযোগ নিয়ে এই ঘটনা ঘটিয়েছে আইএসএফ। বন্যার পরে এই ভেড়ি নতুন করে ঢেলে সাজানো হয়েছে। আবার এই ক্ষতি হয়ে গেল।’ এই ঘটনায় বিচার চেয়েছেন তৃণমূল নেতার পরিবার।

কালাম মোল্লার ভাই সুরাজ মোল্লার অভিযোগ, ‘এই ঘটনাটি ঘটিয়েছে সে বিষয়ে আমরা নিশ্চিত।’ এর কারণ হিসেবে তার বক্তব্য, ‘আমার দাদা তৃণমূল করে তাই আইএসএফ প্রতিশোধ নেওয়ার জন্য এই ঘটনা ঘটিয়েছে।’ ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা ছড়ালে কাশিপুর থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। আইএসএফের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠলেও তাঁদের পক্ষ থেকে কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। ঘটনার তদন্তে কাশিপুর থানার পুলিশ।

বন্ধ করুন