বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Kalna Superspeciality Hospital: প্রসূতিদের কাছ থেকে তোলাবাজির অভিযোগ কালনা সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে

Kalna Superspeciality Hospital: প্রসূতিদের কাছ থেকে তোলাবাজির অভিযোগ কালনা সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে

কালনা সুপার স্পেশালিটি হাসপাতাল।

ওয়ার্ড গার্লদের তোলা আদায় নিয়ে গতকাল উত্তেজনা ছড়ায় কালনা সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে। তাদের অভিযোগ, জোর করে টাকা আদায় করছে ওয়ার্ড গার্লরা। সন্তানের ক্ষতির ভয়ে প্রসূতিরা তাদের দাবি মতো টাকা দিতে বাধ্য হচ্ছেন।

প্রসূতিদের কাছ থেকে তোলাবাজির অভিযোগ উঠল পূর্ব বর্ধমানের কালনা সুপার স্পেশালিটি হাসপাতলে। লেবার রুমে ওয়ার্ড গার্লদের বিরুদ্ধে এই তোলাবাজির অভিযোগ উঠেছে। পুত্র সন্তান জন্মালে নাকি ৫০০ টাকা এবং কন্যা সন্তান হলে ৩০০ টাকা প্রসূতিদের কাছ থেকে জোর করে আদায় করছেন নীল পোশাক পরা এই ওয়ার্ড গার্লরা। এমনই অভিযোগকে কেন্দ্র করে শোরগোল পড়ে গিয়েছে কালনা সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে। যদিও এখনও পর্যন্ত সুপারের কাছে কেউই লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন নি। তবে ঘটনায় তদন্ত করা হবে বলে জানিয়েছেন হাসপাতালের সুপার।

ওয়ার্ড গার্লদের তোলা আদায় নিয়ে গতকাল উত্তেজনা ছড়ায় কালনা সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে। তাদের অভিযোগ, জোর করে টাকা আদায় করছে ওয়ার্ড গার্লরা। সন্তানের ক্ষতির ভয়ে প্রসূতিরা তাদের দাবি মতো টাকা দিতে বাধ্য হচ্ছেন। নিরা হেমব্রম নামে এক প্রসূতি পরিবারের সদস্যের অভিযোগ, তাদের মেয়ের কন্যা সন্তান হওয়ার খবর পেয়ে নীল পোশাক পরা তিনজন মহিলা তাদের কাছে গিয়ে টাকা দাবি করে। তারা জানায় পুত্র সন্তান হলে ৫০০ টাকা এবং কন্যা সন্তান হলে ৩০০ টাকা নিয়ে থাকে তারা। তিনি ওই মহিলাদের ২০০ টাকা দিয়েছিলেন। কিন্তু, তাতে কোনওভাবেই রাজি হয়নি তিন মহিলা। শেষ পর্যন্ত তাদের বাধ্য হয়ে ৩০০ টাকা দিতে হয়েছিল বলে তিনি জানিয়েছেন। একই অভিযোগ তুলেছেন অন্যান্য প্রসূতি এবং তাদের পরিবার। তাদের বক্তব্য, হাসপাতালে সন্তান প্রসব করতে আসলে কেন তাদের টাকা দিতে হবে?

উল্লেখ্য, কালনার মানুষের সুবিধার জন্য এই সুপার স্পেশালিটি হাসপাতাল তৈরি করা হয়েছিল। পার্শ্ববর্তী নদিয়া এবং হুগলি জেলা থেকে প্রচুর মানুষ এই হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য আসেন। এই অবস্থায় একটি গুরুত্বপূর্ণ সরকারি হাসপাতালের বিরুদ্ধে এরকম অভিযোগ ওঠায় শোরগোল পড়ে গিয়েছে। যদিও হাসপাতালের সুপার জানিয়েছেন, তিনি এখনও পর্যন্ত কোনও লিখিত অভিযোগ পাননি। তবে অভিযোগ যেখানে উঠেছে সেক্ষেত্রে নিশ্চয়ই তদন্ত হবে। অভিযোগ প্রমাণিত হলে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বন্ধ করুন