বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > পুত্র সন্তানের জন্ম দেওয়ার পরেই মৃত্যু মায়ের, চিকিৎসায় গাফিলতি! রাস্তা অবরোধ
চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগে রোগী পরিবারের বিক্ষোভ। প্রতীকী ছবি।

পুত্র সন্তানের জন্ম দেওয়ার পরেই মৃত্যু মায়ের, চিকিৎসায় গাফিলতি! রাস্তা অবরোধ

  • দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার গঙ্গারামপুর থানার কালদিঘি এলাকায় এক বেসরকারি নার্সিংহোমের বিরুদ্ধে চিকিৎসার অভিযোগ উঠেছে।

প্রসূতির মৃত্যুর ঘটনায় চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগ উঠল বেসরকারি নার্সিংহোমের বিরুদ্ধে। ঘটনায় প্রসূতির ক্ষুব্ধ পরিবার মৃতদেহ নিয়ে নার্সিংহোমে বিক্ষোভ করেন। দফায় দফায় অবরোধ করলেন জাতীয় সড়ক। দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার গঙ্গারামপুর থানার কালদিঘি এলাকায় এক বেসরকারি নার্সিংহোমের বিরুদ্ধে চিকিৎসার অভিযোগ উঠেছে। এই ঘটনার প্রতিবাদে নার্সিংহোম বন্ধ করে দেওয়ার দাবি তুলেছেন প্রসূতির পরিবারের সদস্যরা।

প্রসূতির নাম পুজা কর্মকার (২১)। তিনি শীলবাড়ি এলাকার বাসিন্দা। অভিযোগ, প্রসব যন্ত্রণা ওঠার পর গত ১৫ ফেব্রুয়ারি তাকে ওই নার্সিংহোমে ভর্তি করা হয়। সেখানে এক পুত্র সন্তানের জন্ম দেন তিনি। নার্সিংহোমে থাকা অবধি নবজাতক এবং মা দুজনেই সুস্থ ছিলেন। সমস্যা শুরু হয় বাড়ি ফেরার পর। পরিবারের সদস্যদের অভিযোগ, গত ১৯ ফেব্রুয়ারি তাকে নার্সিংহোম থেকে ছুটি দেওয়া হয়। বাড়িতে ফেরার পরে শারীরিকভাবে অসুস্থ হতে শুরু করেন পূজা। ক্রমেই তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে অন্য একটি নার্সিংহোমে নিয়ে যান পরিবারের সদস্যরা। অবস্থা আশঙ্কাজনক বুঝে সেখান থেকে ভাল কোনও হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেন চিকিৎসকরা। পরে মালদার একটি বেসরকারি হাসপাতালে প্রসূতিকে ভর্তি করা হয়। কিন্তু, সেখানেও তাকে বাঁচানো সম্ভব হয়নি। গতকাল ভোরে মৃত্যু হয় ওই প্রসূতির।

পরিবারের অভিযোগ, চিকিৎসায় গাফিলতির কারণেই পূজার মৃত্যু হয়েছে। এই অভিযোগ তুলে ওই নার্সিংহোমে মৃতদেহ নিয়ে গিয়ে বিক্ষোভ করেন পরিবারের সদস্যরা। পরে তারা ৫১২ নম্বর জাতীয় সড়ক অবরোধ করেন। ঘটনায় বিশাল পুলিশবাহিনী পৌঁছে অবরোধ উঠিয়ে দেয়। মৃতার পরিবারের অভিযোগ, ‘নার্সিংহোমে পর্যাপ্ত পরিকাঠামোর অভাবেই মৃত্যু হয়েছে তাদের মেয়ের।’ নার্সিংহোম কর্তৃপক্ষকে উপযুক্ত শাস্তির দাবি তোলার পাশাপাশি নার্সিংহোম বন্ধ করে দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন তারা।

বন্ধ করুন