প্রতীকি ছবি
প্রতীকি ছবি

জুম্মাবারে কান্দির মসজিদে হাজার লোকের জমায়েত, ইমামকে সতর্ক করেই ছেড়ে দিল পুলিশ

  • শুক্রবার মুর্শিদাবাদের বড়ঞার গোপীপুরের একটি মসজিদে জুম্মার নমাজ পড়তে জড়ো হয় প্রায় ১০০০ মানুষ।

দেশজুড়ে লকডাউনে বন্ধ সমস্ত ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান। মন্দির – মসজিদে জমায়েতের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে কেন্দ্রীয় ও রাজ্য সরকার। সেসবের তোয়াক্কা না করেই শুক্রবার জুম্মার নমাজ পড়তে মুর্শিদাবাদে মসজিদে জমায়েত হলেন প্রায় হাজারখানেক মানুষ। তাদের সেখান থেকে সরাতে ময়দানে নামতে হল SDPO-কে। এই ঘটনায় মসজিদের ইমামকে কড়া ভাবে সতর্ক করেছে প্রশাসন।

শুক্রবার মুর্শিদাবাদের বড়ঞার গোপীপুরের একটি মসজিদে জুম্মার নমাজ পড়তে জড়ো হয় প্রায় ১০০০ মানুষ। লকডাউনের তোয়াক্কা না করেই জমায়েত করে তারা। অভিযোগ, সোশ্যাল ডিসট্যান্সিং তো দূর অস্ত, জমায়েতে প্রায় কারও মুখেই ছিল না মাস্ক। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছন কান্দির SDPO কুমার সানি। গোটা এলাকা খালি করে দিতে নির্দেশ দেন তিনি। এর পর পুলিশকর্মীরা এলাকা খালি করান।

এই ঘটনায় মসজিদের ইমামকে কড়া ভাষায় সতর্ক করেছে প্রশাসন। আগামী দিনে এই ঘটনার পুনরাবৃত্তি হলে কড়া শাস্তির মুখে পড়তে হবে বলে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে তাঁকে। প্রশ্ন হল, করোনা সংক্রমণের এত বড় ঝুঁকি থাকলেও কেন ব্যবস্থা গ্রহণ করা হল না ইমামের বিরুদ্ধে।



বন্ধ করুন