বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > শাহকে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে হবে, দাবি গ্রামবাসীদের, তৃণমূলের হাত দেখছে বিজেপি
অমিত শাহ (PTI)
অমিত শাহ (PTI)

শাহকে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে হবে, দাবি গ্রামবাসীদের, তৃণমূলের হাত দেখছে বিজেপি

  • কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাওয়ার দাবি জানিয়ে আদিবাসী সমাজের পক্ষ থেকে ৫০ হাজার চিঠি পাঠানো হচ্ছে।

কার গলায় মালা দিতে গিয়ে কার গলায় মালা দিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তা নিয়ে বিতর্ক কম হয়নি। আর তাতে জল ঢালতে গিয়ে বিজেপি’‌র রাজ্য সভাপতি বলেছিলেন, ‘‌দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মালা পরিয়ে যখন বলেছেন এটা বিরসা মুন্ডার মূর্তি তখন আজ থেকে ওটাকেই বিরসা মুন্ডার মূর্তি বলে মেনে নিতে হবে।’‌ এই মন্তব্যে যেন আগুনে ঘৃতাহুতি পড়েছে। বিরসা মুন্ডার মূর্তি বিতর্ক উস্কে দিয়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাওয়ার দাবি জানিয়ে আদিবাসী সমাজের পক্ষ থেকে ৫০ হাজার চিঠি পাঠানো হচ্ছে। তাতে বিতর্ক আরও বাড়বে বলে মনে করা হচ্ছে।

বছর ঘুরলেই বিধানসভা নির্বাচন। তার আগে এই পরিস্থিতি তৈরি হওয়া মানে ভোটবাক্সে প্রভাব পড়তে পারে। মঙ্গলবার এই খবর জানালেন বাঁকুড়া জেলা তৃণমূল সভাপতি ও রাজ্যের মন্ত্রী শ্যামল সাঁতরা। জেলার আদিবাসী অধ্যুষিত এলাকার ছেলে মেয়েরা মঙ্গলবার থেকেই এই চিঠি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বাড়ির ঠিকানায় পাঠাচ্ছেন বলে তিনি জানান। গেরুয়া শিবিরের কয়েকজন অবশ্য বলছেন, এই চিঠি পাঠানোর ছক আসলে তৃণমূলের। এতে ভোটে কোনও প্রভাব পড়বে না।

উল্লেখ্য, বাঁকুড়া সফরে আসেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ্। জেলায় পৌঁছেই শহর সংলগ্ন পুয়াবাগানে একটি মূর্তিতে মালা দেন। বিজেপি’‌র পক্ষ থেকে ওই মূর্তি বিরসা মুন্ডার দাবি করা হলেও তৃণমূল ও আদিবাসী সমাজের একাংশ তা মানতে নারাজ। তাদের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়, ওই মূর্তি একজন আদিবাসী শিকারীর। আর শিকারীর মূর্তিকে বিজেপি বিরসা মুন্ডার বলে জোর করে চালাতে চাইছে বলেও অভিযোগ ওঠে।

এদিকে চিঠি লেখার ফাঁকে ঈশ্বর মুর্ম্মু, নীলমনি মুর্মুরা জানান, এক শিকারীর মূর্তিতে আমাদের আরাধ্য দেবতা বিরসা মুন্ডার নাম করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মালা দিয়েছেন। যা আমাদের কাছে অপমানজনক। তাই তাঁকে প্রকাশ্য ক্ষমা চাওয়ার দাবি জানিয়ে চিঠি লেখা হচ্ছে বলে তারা জানান। অন্যদিকে বিজেপি’‌র জেলা যুব মোর্চা সভাপতি সুনীল রুদ্র মণ্ডল জানান, গত লোকসভা ভোটের ফলাফলের নিরিখে তৃণমূল আদিবাসী সমাজের কাছ থেকে বিচ্ছিন্ন। তাই এখন ভগবান বিরসা মুন্ডাকে নিয়ে রাজনীতি করছে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে চিঠি লেখার বিষয়টি তৃণমূলের ‘ভাঁওতাবাজি’।

 

বন্ধ করুন