বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ৩০ জানুয়ারি ঠাকুরনগরে শাহ, CAA কার্যকর নিয়ে হতে পারে বড় ঘোষণা
অমিত শাহ। ফাইল ছবি
অমিত শাহ। ফাইল ছবি

৩০ জানুয়ারি ঠাকুরনগরে শাহ, CAA কার্যকর নিয়ে হতে পারে বড় ঘোষণা

  • এদিন শান্তনু বলেন, ‘অমিত শাহ ঠাকুরনগরে সভা করে মতুয়াদের মনে CAA সংক্রান্ত সংশয় দূর করবেন। আমরা এটাই চেয়েছিলাম। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর তৎপরতায় আমরা খুশি।’

বিধানসভা নির্বাচনের আগে CAA কার্যকর করা নিয়ে মতুয়াদের মনে যাবতীয় সংশয়ের অবসান ঘটাতে জানুয়ারিতেই ঠাকুরনগরে সভা করবেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। মঙ্গলবার এক সাংবাদিক বৈঠকে এমনই জানিয়েছেন বনগাঁর সাংসদ তথা মতুয়া মহাসংঘের সংঘাধিপতি শান্তনু ঠাকুর। 

এদিন শান্তনু বলেন, ‘অমিত শাহ ঠাকুরনগরে সভা করে মতুয়াদের মনে CAA সংক্রান্ত সংশয় দূর করবেন। আমরা এটাই চেয়েছিলাম। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর তৎপরতায় আমরা খুশি।’

বিজেপি সূত্রের খবর, ঠাকুরনগর ঠাকুরবাড়ির সামনের মাঠে সভা করবেন শাহ। সেজন্য মঙ্গলবার মাঠ পরিদর্শন করেন বিজেপি নেতারা। 

বিধানসভা নির্বাচনের মুখে CAA নিয়ে লাগাতার বেসুরো গাইছিলেন শান্তনু ঠাকুর। গত সপ্তাহে তাঁকে বোঝাতে বৈঠক করেন দিলীপ ঘোষ, মুকুল রায়ের মতো নেতারা। এর পর দলীয় দফতরে সাংবাদিক বৈঠক করে আপাতত রণে ভঙ্গ দেন তিনি। 

শান্তনুর দাবি ছিল, সংসদে বিল পাশের পর বছর ঘুরতে চললেও এখনো CAA কার্যকর না-হওয়ায় মতুয়ারা সংশয়ে ভুগছেন।  গত মাসে ঠাকুরনগরে গিয়ে এব্যাপারে শান্তনুর সঙ্গে বৈঠক করেন বিজেপির এরাজ্যের পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয়। তার পর তিনি জানিয়েছিলেন, জানুয়ারির শেষে বা ফেব্রুয়ারিতে CAA কার্যকর হবে। কিন্তু অমিত শাহের বোলপুর সফরে সুর কাটে। ওই সফরে শাহ জানান, টিকা বাজারে আসা ও করোনায় বেড়ি না পরা পর্যন্ত CAA কার্যকর সম্ভব নয়। এর পরই ফের সুর চড়ান শান্তনু।

গত সপ্তাহে শান্তনুর সঙ্গে বৈঠকে ঠিক হয় ঠাকুরনগরে সভা করে CAA কার্যকর করার ব্যাপারে সুনির্দিষ্ট ঘোষণা করবেন শাহ। সঙ্গে বনগাঁ লোকসভা কেন্দ্রকে আলাদা সাংগঠনিক জেলা ঘোষণা করে বিজেপি। সেই জেলার সভাপতি করা হয় শান্তনু ঘনিষ্ঠ চিকিৎসক মনস্পতি দেবকে। তার পরই সুর নরম করেন শান্তনু। 

 

বন্ধ করুন