বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > মণীশ শুক্ল খুনে তামিলনাড়ুতে গ্রেফতার অন্যতম চক্রী অনীশ ঠাকুর
মণীশ শুক্ল। ফাইল ছবি
মণীশ শুক্ল। ফাইল ছবি

মণীশ শুক্ল খুনে তামিলনাড়ুতে গ্রেফতার অন্যতম চক্রী অনীশ ঠাকুর

  • পশ্চিমবঙ্গ সিআইডির তরফে জানানো হয়েছে, অনীশকে হেফাজতে পেতে চেষ্টা চালাবে তারা। সেজন্য তামিলনাড়ু যাচ্ছেন আধিকারিকরা। সেখান থেকে ট্রানজিট রিমান্ডে তাঁকে কলকাতা আনার চেষ্টা হবে।

বিজেপি নেতা মণীশ শুক্ল খুনে অন্যতম অভিযুক্ত অনীশ ঠাকুরকে গ্রেফতার করল তামিলনাড়ু পুলিশ। সেরাজ্যে একটি স্বর্ণঋণ প্রদানকারী সংস্থায় ডাকাতির চেষ্টার অভিযোগে তাঁকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মণীশকে হেফাজতে পেতে তামিলনাড়ু যাওয়ার তোড়জোড় শুরু করেছে পশ্চিমবঙ্গ সিআইডি। 

মণীশ খুনে শার্প শ্যুটার অনীশের খোঁজে বিহার গিয়েছিলেন সিআইডির গোয়েন্দারা। কিন্তু তার নাগাল মেলেনি। মণীশ খুনের সময় ওই দুষ্কৃতী ঘটনাস্থলেই ছিল বলে গোয়েন্দাদের দাবি। সিসিটিভি ফুটেজে সেই ছবি দেখাও গিয়েছে। বিষয়টি নিয়ে শোরগোল শুরু হতে দক্ষিণ ভারতে গা ঢাকা দেয় অনীশ। এর পর সেখানে স্থানীয় দুষ্কৃতীদের সঙ্গে হাত মিলিয়ে স্বর্ণঋণ সংস্থায় ডাকাতির চেষ্টা চালায় সে। সেখানেই তামিলনাড়ু পুলিশের হাতে ধরা পড়ে পুলিশ। 

পশ্চিমবঙ্গ সিআইডির তরফে জানানো হয়েছে, অনীশকে হেফাজতে পেতে চেষ্টা চালাবে তারা। সেজন্য তামিলনাড়ু যাচ্ছেন আধিকারিকরা। সেখান থেকে ট্রানজিট রিমান্ডে তাঁকে কলকাতা আনার চেষ্টা হবে। ঘটনায় এই নিয়ে মোট ১১ জন গ্রেফতার হলেন। 

গত ৪ অক্টোবর সন্ধ্যায় টিটাগড় থানার কাছে বিজেপির পার্টি অফিসের সামনে খুন হন বিজেপি নেতা মণীশ শুক্ল। ওই ঘটনায় তৃণমূলকে কাঠগড়ায় তোলে বিজেপি। ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ঘটনার তদন্তভার সিআইডিকে দেয় রাজ্য সরকার। মণীশ শুক্ল খুনে সিবিআই তদন্তের দাবিতে পরিজনরা মামলা করলেও এখনো সিআইডিতেই ভরসা রেখেছে আদালত।

 

বন্ধ করুন