বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > চাকরি হারানোর পর অবশেষে প্রকাশ্যে দেখা গেল পরেশ অধিকারীর মেয়ে অঙ্কিতাকে
পাড়ার খুঁটিপুজোয় অঙ্কিতা অধিকারী।

চাকরি হারানোর পর অবশেষে প্রকাশ্যে দেখা গেল পরেশ অধিকারীর মেয়ে অঙ্কিতাকে

  • গত ২০ মে পরেশ অধিকারীর মেয়ে অঙ্কিতাকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করার নির্দেশ দেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। তার কয়েকদিন আগে আদালতেই শেষবার দেখা গিয়েছিল অঙ্কিতাকে। নির্দেশ কার্যকর করতে অঙ্কিতাকে মেখলিগঞ্জ ইন্দিরা উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের শিক্ষিকার পদ থেকে বরখাস্ত করে স্কুলশিক্ষা দফতর।

তাঁর নামে তোলপাড় হয়েছে রাজ্য। নাক – কান কাটা গিয়েছে সরকারের। কিন্তু তাঁকে প্রকাশ্যে দেখা যায়নি একবারও। অবশেষে দুর্গাপুজোর খুঁটিপুজোয় আবির্ভাব হল রাজ্যে শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী পরেশ অধিকারীর মেয়ে অঙ্কিতার। দুর্নীতি করে শিক্ষিকার চাকরিতে নিয়োগ পাওয়ায় ইতিমধ্যে তাঁকে বরখাস্ত করেছে আদালত। এমনকী ফেরত দিতে হয়েছে ৪৩ মাসের বেতনবাবদ প্রায় ১৭ লক্ষ টাকা।

রবিবার মেখলিগঞ্জের পশ্চিমপাড়ায় দুর্গাপুজোর খুঁটি পুজোয় অংশগ্রহণ করেন অঙ্কিতা। দীর্ঘদিন পর তিনি প্রকাশ্যে আসায় খুশি স্থানীয়রা। তাদের দাবি, যা হয়েছে তা ভুলে স্বাভাবিক জীবনে ফিরুন তিনি।

গত ২০ মে পরেশ অধিকারীর মেয়ে অঙ্কিতাকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করার নির্দেশ দেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। তার কয়েকদিন আগে আদালতেই শেষবার দেখা গিয়েছিল অঙ্কিতাকে। নির্দেশ কার্যকর করতে অঙ্কিতাকে মেখলিগঞ্জ ইন্দিরা উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের শিক্ষিকার পদ থেকে বরখাস্ত করে স্কুলশিক্ষা দফতর। সঙ্গে তাঁকে ৪৩ মাসের বেতন ফেরাতে নির্দেশ দেয় আদালত। গোটা ঘটনাক্রমের সময় কার্যত আড়ালে ছিলেন অঙ্কিতার বাবা পরেশ অধিকারী। পরে তিনি প্রকাশ্যে এলেও আর দেখা যায়নি অঙ্কিতাকে। ওদিকে আদালতের নির্দেশে গত মাসে অঙ্কিতার জায়গায় চাকরিতে যোগদান করেছেন যোগ্য প্রার্থী ববিতা সরকার।

এদিন পাড়ার পুজোর খুঁটিপুজোয় যোগদান করে অবশ্য বিশেষ মুখ খোলেননি অঙ্কিতা। প্রতিবেশীদের সঙ্গে সৌজন্যমূলক আলাপচারিতা করেছেন মাত্র। তবে প্রতিবেশীদের অনেকের মতে এই পরিণতির জন্য অঙ্কিতা দায়ী নন। তাই দ্রুত স্বাভাবিক জীবনে ফিরুন তিনি।

 

বন্ধ করুন