বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > কালো টাকা কী করে সাদা করে তাই জানি না, দাবি অনুব্রত ঘনিষ্ঠ ব্যবসায়ী মলয় পিটের

কালো টাকা কী করে সাদা করে তাই জানি না, দাবি অনুব্রত ঘনিষ্ঠ ব্যবসায়ী মলয় পিটের

মলয় পিট। ফাইল ছবি

তরুণজ্যোতিকে তাঁর চ্যালেঞ্জ, ‘উনি অভিযোগটা যত জোর দিয়ে করছেন। আশা করব মামলার রায়টাও তত জোর দিয়ে প্রচার করবেন’।

অনুব্রত মণ্ডলের গরু ও কয়লাপাচারের কালো টাকা সাদা করায় যুক্ত রয়েছেন তিনি। তাঁর নেতৃত্বাধীন একাধিক ট্রাস্টের বিরুদ্ধে সাদা করা হয়েছে কোটি কোটি কালো টাকা। বিজেপি নেতা তরুণজ্যোতি তিওয়ারির তোলা এই অভিযোগ খারিজ করলেন মলয়বাবু। তিনি বলেন, ‘কালো টাকা কী ভাবে সাদা করে তাই আমি জানি না।’

এদিন তরুণজ্যোতির অভিযোগ অস্বীকার করে মলয়বাবু বলেন, ‘আমি পলিটেকনিক কলেজগুলো করেছি সিপিএমের শেষ জমানায়। আমি সাইকেল চড়েই ঘুরতাম। আমি কোটিপতি ঘরের ছেলে নই তো। উনি হয়তো আইনটা ভালো বোঝেন। আমাদের অত জানা নেই। আমাদের কাছে কাগজ আছে। কাগজ দেখিয়ে দেব। উনি তো আদালতে মামলা করেছেন’।

মলয় পিটের ট্রাস্টের মাধ্যমে সাদা হয়েছে অনুব্রতর কালো টাকা: তরুণজ্যোতি

তরুণজ্যোতিকে তাঁর চ্যালেঞ্জ, ‘উনি অভিযোগটা যত জোর দিয়ে করছেন। আশা করব মামলার রায়টাও তত জোর দিয়ে প্রচার করবেন’।

মলয়বাবু বলেন, ‘গরু - কয়লায় যে এত টাকা রয়েছে তা আমি গত কয়েকদিন আগে জানতে পারলাম। কালো টাকা সাদা করতে গেলে তো ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে লেনদেন হতে হবে। আমাদের অ্যাকাউন্ট থেকে কারও অ্যাকাউন্টে সেভাবে টাকা গেছে কি না দেখে নিন। কালো টাকা কী ভাবে সাদা করে তাই আমি জানি না’।

এদিন তরুণজ্যোতিবাবু দাবি করেন, মলয় পিটের আইটিআই কলেজের মাধ্যকে কেন্দ্রীয় প্রকল্পের কোটি কোটি টাকা নয়ছয় করা হয়েছে। অনুব্রত মণ্ডলের পাচারের কালো চাকাও সাদা করা হয়েছে এই প্রতিষ্ঠানগুলির মাধ্যমে। ১০ বছর আগে যিনি সাইকেল চালিয়ে ঘুরে বেড়াতেন তিনি কী করে হাজার হাজার কোটির মালিক হলেন তা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন তিনি।

 

 

বন্ধ করুন