বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > CBI: সাক্ষ্য হিসেবে ডেকে পাঠানোর পরেও কেন গ্রেফতার করা হল সায়গলকে? সিবিআইকে শোকজ
সায়গল হোসেন।

CBI: সাক্ষ্য হিসেবে ডেকে পাঠানোর পরেও কেন গ্রেফতার করা হল সায়গলকে? সিবিআইকে শোকজ

  • সায়গলের আইনজীবী দাবি করেন, সাক্ষী হিসেবে তাঁর মক্কেলকে থেকে ডেকে পাঠানো হয়েছিল। সেই কারণে তিনি আগাম জামিন না নিয়ে সিবিআইয়ের কাছে হাজিরা দিয়েছিলেন সহযোগিতার জন্য। অথচ তাকে অবৈধভাবে গ্রেফতার করেছে সিবিআই। 

গরু পাচারকারকাণ্ডে বীরভূমের তৃণমূল নেতা অনুব্রত মণ্ডলের দেহরক্ষী সায়গল হোসেনকে ১৭ জুন পর্যন্ত সিবিআই হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছে আদালত। কিন্তু, প্রশ্ন উঠছে সাক্ষী হিসেবে ডেকে পাঠানোর পরেও কেন তাকে গ্রেফতার করল সিবিআই? গতকাল আসানসোল সিবিআই আদালতের বিচারক এই প্রশ্ন করেন তদন্তকারী অফিসারকে। কিন্তু, সদুত্তর না মেলায় সিবিআইয়ের তদন্তকারী অফিসারকে শোকজ করেছেন বিচারক। আগামী ১৭ জুন মামলার পরবর্তী শুনানিতে আদালতে লিখিত জবাব জমা দেওয়ার জন্য সিবিআইয়ের তদন্তকারী অফিসারকে নির্দেশ দিয়েছেন বিচারক।

বৃহস্পতিবার সায়গলকে গ্রেফতারের পর শুক্রবার তাকে তোলা হয় আসানসোলের সিবিআই আদালতে। সেখানে সায়গলের আইনজীবী দাবি করেন, সাক্ষী হিসেবে তাঁর মক্কেলকে থেকে ডেকে পাঠানো হয়েছিল। সেই কারণে তিনি আগাম জামিন না নিয়ে সিবিআইয়ের কাছে হাজিরা দিয়েছিলেন সহযোগিতার জন্য। অথচ তাকে অবৈধভাবে গ্রেফতার করেছে সিবিআই।এরপর সায়গলের জামিনের আবেদন জানান তার আইনজীবী। তবে সিবিআইয়ের তরফে জামিনের বিরোধিতা করা হয়। সিবিআইয়ের আইনজীবী জানান, গরু পাচারকাণ্ডে অন্যতম লিঙ্ক ম্যান হিসেবে কাজ করতেন সায়গল। ফলে তাকে ছেড়ে দেওয়া হলে গুরুত্বপূর্ণ প্রমাণ নষ্ট করা হতে পারে। এছাড়া আরও বেশ কয়েক জনকে গ্রেফতারের চেষ্টা চালানো হচ্ছে।

আগামী ১৭ জুন মামলার পরবর্তী শুনানি। সিবিআই আদালতের বিচারক আগামী ১৭ জুন তদন্তকারী অফিসারকে লিখিত আকারে জমা দিতে বলেছেন। এর পাশাপাশি সায়গেলের প্রচুর সম্পত্তির হদিশ পেয়েছে সিবিআই। কীভাবে এত সম্পত্তি তার কাছে আসল তা খতিয়ে দেখছেন সিবিআইয়ের আধিকারিকরা।

বন্ধ করুন